জিপিএ-৫ না পেয়ে শিক্ষার্থীর আত্মহত্যা

181
Self-murder

এসএসসিতে জিপিএ-৫ না পেয়ে ফুলবাড়ীয়া সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্র চাঁদন (১৬) ফাঁসি দিয়ে আত্মহত্যা করেছে। চাঁদন বরুকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক ইউসুফ আলীর ছেলে। তাদের বাড়ি উপজেলার বাকতা ইউনিয়নের বাকতা গ্রামে।

এসএসসি ফলাফল প্রকাশের পর রবিবার দুপুর ২টার দিকে চাঁদন তাঁর ফেসবুক Ā.S. Chadon আইডিতে লিখেন I’m faded, Thank you। একা বাসায় কখন আত্মহত্যা করেছে কেউ বলতে পারে না, ধারণা করা হচ্ছে ফলাফল জানার পর কোনো এক সময় আত্মহত্যা করে। রবিবার রাত ১০টা ৪০ মিনিটে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

জানা যায়, সরকারি ফুলবাড়িয়া মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করে চাঁদন জিপিএ ৪.৯৪ পেয়েছে।

জিপিএ-৫ না পেয়ে পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন ভাড়া বাসায় প্যান্টের বেল্ট দিয়ে ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ফাঁসিতে ঝুলে আত্মহত্যা করে। এসময় বাসায় কেউ ছিল না। সন্ধ্যায় তার বাবা ইউসুফ আলী ডাকাডাকি করলে ঘরের দরজা না খুললে দরজা ভেঙে ভেতরে গিয়ে দেখতে পায় সন্তানের ঝুলন্ত লাশ।

সহপাঠীদের ধারণা, ক্লাশের ভালো ছাত্র হওয়ার পরও আশানুরূপ (জিপিএ-৫) ফলাফল না হওয়ায় আত্মহত্যা করতে পারে চাঁদন। আত্মহত্যাকারী শিক্ষার্থী চাঁদনের পরিবারের সঙ্গে কথা বলার কোনো পরিস্থিতি না থাকায় তাদের বক্তব্য নেওয়া যায়নি।

ফুলবাড়িয়া থানা ওসি (তদন্ত) জহিরুল ইসলাম মুন্না বলেন, এসএসসিতে জিপিএ-৫ না পাওয়ায় আত্মহত্যা করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশ উদ্ধার করা হয়েছে ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হবে।

সূত্র- কালের কণ্ঠ

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here