ধর্মের ভেদাভেদ ভুলে হিন্দু মন্দিরে খাবার বিলি করলেন আফ্রিদি

211
Shahid Afridi

করোনা জাতি-ধর্ম-বর্ণ মানে না। তাই এমন সঙ্কটের দিনে ধর্মের ভেদাভেদ না করেই করোনা থেকে মুক্তি পেতে প্রত্যেককে পরস্পরের পাশে দাঁড়াতে হবে। ঠিক যেমনটা করলেন পাকিস্তানের সাবেক ক্রিকেট তারকা শাহিদ আফ্রিদি। হিন্দু-মুসলিম ভেদাভেদ ভুলে মানুষ হিসেবে অভুক্তদের মুখে খাবার তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা করলেন তিনি। সম্প্রতি মন্দিরে গিয়ে খাবার বিলি করেন। যার জন্য প্রাক্তন ক্রিকেটারকে প্রশংসা জানাচ্ছে সোশ্যাল মিডিয়া।

করোনা মোকাবেলায় লকডাউনের জেরে সমস্যায় পড়েছেন দিন আনি দিন খাই মানুষগুলো। দু’বেলা-দু’মুঠো অন্নের জোগান করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে দুস্থ-গরিব পরিবারগুলো। এমন দুর্দিনে তারা যাতে অভুক্ত না থাকেন, তার জন্য অনেকদিন আগে থেকেই উদ্যোগ নিয়েছেন বুমবুম ও তার সংগঠন। পাকিস্তানের বিভিন্ন প্রান্তে খাবার পৌঁছে দিচ্ছে তার ফাউন্ডেশন। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই সামনে থেকে নেতৃত্ব দিতে দেখা যাচ্ছে আফ্রিদিকে। ফের নতুন করে নেটদুনিয়ার প্রশংসা কুড়োলেন চিরতরুণ আফ্রিদি।

সম্প্রতি একটি হিন্দু মন্দিরে যান তিনি। সেখানেও খাবার বিলি করেন। যার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করে আফ্রিদি লেখেন, আমরা একসঙ্গে সঙ্কটে পড়েছি। তাই ঐক্যবদ্ধভাবেই লড়তে হবে। একতাই আমাদের শক্তি। খাবার দিতে শ্রী লক্ষ্মী নারায়ণ মন্দিরে গিয়েছিলাম।

এই মহত্‍ কাজে যে সমস্ত খাবারের ব্র্যান্ড তার পাশে দাঁড়িয়েছে তাদের ধন্যবাদও জানিয়েছেন আফ্রিদি। এখনো পর্যন্ত ২২ হাজার পরিবারের কাছে রেশন পৌঁছে দিতে পেরে খুশি তিনি। তবে এখানেই ইতি নয়। এখনো অনেক কাজ বাকি। তাই তো তার এই সমাজসেবা চলবে। পাকিস্তানের আরো শহর ও গ্রামের মানুষ উপকৃত হবেন তাকে পাশে পেয়ে।

সূত্রঃ কালের কণ্ঠ

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here