পাকিস্তানে ৯৮ আরোহীবাহী প্লেন বিধ্বস্ত, ৩৫ মরদেহ উদ্ধার

138

পাকিস্তানে যাত্রীবাহী প্লেন বিধ্বস্তের ঘটনায় এ পর্যন্ত অন্তত ৩৫টি মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন স্থানীয় একটি দাতব্য সংস্থার মুখপাত্র সাদ ইধি।
তিনি স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, তারা দুর্ঘটনাস্থল থেকে এ পর্যন্ত অন্তত ৩৫টি মরদেহ বিভিন্ন হাসপাতালে স্থানান্তর করেছেন। এছাড়া অন্তত ২৫ থেকে ৩০ জন স্থানীয় বাসিন্দাকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

তবে মর্মান্তিক দুর্ঘটনাটিতে মোট কতজন মারা গেছেন তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি বলে জানান ঐতিহ্যবাহী ইধি ফাউন্ডেশনের এ প্রতিনিধি।

এর আগে, শুক্রবার (২২ মে) দুপুরে করাচির জিন্নাহ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে মডেল কলোনিতে বিধ্বস্ত হয় পাকিস্তান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্সের (পিআইএ) প্লেনটি। এ৩২০ এয়ারবাসের ফ্লাইটটি লাহোর থেকে করাচি যাচ্ছিল।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম প্লেনটিতে মোট ৯৮ আরোহী ছিলেন জানালেও ডেইলি মেইল, ব্লুমবার্গসহ কিছু আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম বলছে, ফ্লাইটটিতে ১০৭ আরোহী ছিলেন।

যান্ত্রিক ত্রুটি

বিমানবন্দরে অবতরণের কিছুক্ষণ আগেই বিধ্বস্ত হয় প্লেনটি। এয়ার ট্রাফিক কন্ট্রোলের সঙ্গে পাইলটের কথোপকথন থেকে জানা গেছে, যান্ত্রিক গোলযোগের কারণেই বিধ্বস্ত হয়েছে সেটি। লাইভএটিসি ডটনেটে তাদের এ কথোপকথনের রেকর্ড প্রকাশ করা হয়েছে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা অ্যাসোসিয়েডেট প্রেস।

সিন্ধ প্রদেশের গভর্নর ইমরান ইসমাইল বলেন, ‘প্লেনটি জনবসতিপূর্ণ এলাকায় বিধ্বস্ত হয়েছে। এ কারণে স্থানীয়দের হতাহতের বিষয়টিই মূল উদ্বেগের কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। রেঞ্জার্স ও উদ্ধারকারীদের ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। আমরা যত বেশি সম্ভব প্রাণ বাঁচানোর চেষ্টা করছি।’

সূত্র: দ্য ডন

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here