‘মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা’ বিষয়ে জানতে চেয়ে স্বাস্থ্যের ডিজিকে শোকজ

75

রিজেন্ট হাসপাতালের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর হয়েছে মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে- শনিবার দেওয়া স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এই চিঠির বিষয়ে ব্যাখ্যা চেয়ে এর মহাপরিচালককে শোকজ করা হয়েছে।

স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব আবদুল মান্নান গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন। এ ছড়া জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটের চিকিৎসক সাবরিনা আরিফ চৌধুরীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

শনিবার রিজেন্ট হাসপাতাল ও জোবেদা খাতুন হেলথ কেয়ারের (জেকেজি) প্রতারণার বিষয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (সমন্বয়) ডা. মো. জাহাঙ্গীর কবির স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ সংক্রান্ত ব্যাখ্যা দেয় অধিদপ্তর।

এতে বলা হয়, মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ কর্তৃক নির্দেশিত হয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হাসপাতাল বিভাগ রিজেন্টের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের উদ্যোগ নেয়।

এরপর রবিবার স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদকে পাঠানো শোকজে মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতর কর্মকর্তা বলতে কী বোঝানো হয়েছে এবং রিজেন্টের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষরের আগে কী কী বিষয় বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে তা জানাতে বলা হয়।

অপর দিকে সাবরিনাকে বরখাস্তের কারণ হিসেবে বলা হয়েছে, তিনি সরকারী চাকুরে হওয়া সত্ত্বেও অনুমতি না নিয়েই বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের (জেকেজি) চেয়ারম্যান পদে ছিলেন। তা ছাড়া করোনা পরীক্ষার ভুয়া সনদ দিয়ে অর্থ আত্মসাতের সঙ্গেও তিনি জড়িত বলে অভিযোগ রয়েছে। সরকারী কর্মচারি বিধিমালা অনুযায়ী এগুলো শাস্তিযোগ্য অপরাধ। এসব কারণে তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

উৎসঃ   দেশ রুপান্তর

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here