যুক্তরাষ্ট্রের মানবপাচার প্রতিবেদনে উঠে এল এমপি পাপুলের দুষ্কর্ম

46
Mohammad Shahidul Islam Papul

যুক্তরাষ্ট্রের বার্ষিক মানবপাচার বিষয়ক প্রতিবেদন ‘ট্রাফিকিং ইন পার্সন রিপোর্ট ২০২০’-এ উঠে এসেছে লক্ষ্মীপুর-২ আসনের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ শহীদুল ইসলাম পাপুলের নাম। এতে বলা হয়েছে কুয়েতি কর্মকর্তাদের ঘুষ দিয়ে ২০ হাজার বাংলাদেশিকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে কুয়েতে নিয়ে বিপদে ফেলেছেন তিনি।

মানবপাচারের নানা অভিযোগে আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমগুলোতে উঠে এসেছে এমপি পাপুলের নাম। তবে এবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদনেও তার নাম যুক্ত হলো।

মানবপাচারের অভিযোগে কুয়েতে গ্রেফতার হয়েছেন পাপুল। সম্প্রতি তার এক নারী সহযোগী ব্যবসায়ীকে কুয়েত সরকার দেশত্যাগে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কুয়েতি কর্মকর্তাদের ঘুষ দিয়ে ২০ হাজার বাংলাদেশিকে কুয়েতে নিয়ে যান এমপি পাপুল। কিন্তু সেখানে তাদের যে চাকরি দেয়ার কথা ছিল, বেশিরভাগই সেই চাকরি পাননি। যে বেতনের কথা বলা হয়েছিল, তারা তার চেয়ে কম বেতন পেয়েছেন বা একদমই পাননি।

প্রতিবেদনে উঠে এসেছে, মালয়েশিয়ার চাকরিদাতা সংস্থাগুলো বাংলাদেশের ১০টি রিক্রুটিং এজেন্সির সঙ্গে মিলে দুই দেশের কর্মকর্তা ও রাজনীতিবিদদের ঘুষ দিয়ে বাংলাদেশি শ্রমিক পাঠানোর বিষয়টিতে একচ্ছত্র আধিপত্য তৈরি করেছিল। তারা মালয়েশিয়া যেতে শ্রমিকদের কাছ থেকে চার লাখ টাকা পর্যন্ত আদায় করেছে। যদিও এর জন্য সরকার নির্ধারিত ফি ছিল মাত্র ৩৭ হাজার টাকা। এর ফলে বাংলাদেশি অভিবাসী শ্রমিকরা বিপদে পড়ে এবং ঋণে জর্জরিত হয়।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here