ক্ষমতার ছয় মাসে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা তলানিতে

প্রেসিডেন্ট হিসেবে ক্ষমতা গ্রহণের ছয় মাসের মধ্যেই ডোনাল্ড ট্রাম্পের জনপ্রিয়তা রেকর্ড তলানিতে গিয়ে ঠেকেছে। গত বসন্ত থেকেই তার জনপ্রিয়তায় ধস নামে।

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্সিয়াল কর্মসূচি বাস্তবায়ন, বিশেষ করে অজনপ্রিয় রিপাবলিকান স্বাস্থ্যনীতির কারণে ট্রাম্পের জনপ্রিয়তার এমন পরিস্থিতি বলে জানিয়েছে ওয়াশিংটন পোস্ট ও এবিসি নিউজের এক জরিপ। জরিপের ফলাফলে দেখা গেছে, ট্রাম্পের কাজকে সমর্থন করেন মাত্র ৩৬ শতাংশ মার্কিনি। অন্যদিকে, তার বিরোধিতা করছেন ৫৮ ভাগ মার্কিনি। গত ১০-১৩ জুলাই এ জরিপ চালানো হয়।

হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের কর্মদক্ষতার ব্যাপারে ‘শক্ত বিরোধিতা’ প্রকাশ করেছেন সব মিলিয়ে ৪৮ শতাংশ মার্কিন নাগরিক। জরিপ বলছে, ক্ষমতার এ সময়ে এসে সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা ও বিল ক্লিনটনের জনপ্রিয়তা এতটা খারাপ ছিল না। তবে জর্জ ডব্লিউ বুশের দ্বিতীয় মেয়াদে তার জনসমর্থন এমন স্থানে গিয়ে পৌঁছেছিল। শপথ নেয়ার পর ছয় মাসের মধ্যে বিশ্বের সবচেয়ে দুর্বল প্রেসিডেন্ট হিসেবে ট্রাম্পকে দেখছেন প্রায় অর্ধেক মার্কিনি (৪৮ শতাংশ)। অন্যদিকে, তার নেতৃত্বকে শক্তিশালী হিসেবে দেখছেন ২৭ ভাগ মার্কিন নাগরিক।

দেশের জন্য কল্যাণ হবে এমন কোনো চুক্তির বিষয়ে জরিপে ট্রাম্পের প্রতি মার্কিনিদের আস্থার পরীক্ষা করা হয়। জরিপে অংশ নেয়া নাগরিকরা বলছেন, তারা রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনসহ বিশ্বনেতাদের সঙ্গে ট্রাম্পের কোনো চুক্তির প্রতি আস্থা রাখেন না। এক-তৃতীয়াংশ (৩৩ ভাগ) মার্কিন নাগরিক বিশ্বাস করেন, বিশ্বনেতাদের সঙ্গে ট্রাম্পের ‘একটি বৃহৎ চুক্তি’ বা ‘বড় মূল্যের চুক্তিতে’ পৌঁছানোর প্রতি তাদের বিশ্বাস রয়েছে।

ট্রাম্পের প্রতি আস্থা রাখেন না এমন মার্কিনির সংখ্যা ৪৮ ভাগ। এমনকি বিশেষভাবে ট্রাম্প ও পুতিনের ব্যাপারে মার্কিন নাগরিকদের মতামত চাওয়া হলে দেখা গেছে, প্রতি তিনজনের দু’জন ট্রাম্পের প্রতি আস্থা রাখতে পারছেন না। ২০১৬ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে রাশিয়ার হস্তক্ষেপ এবং মস্কো ও টাম্প শিবিরের মধ্যে সম্ভাব্য আঁতাতের বিষয়েও নাগরিকদের মতামত চাওয়া হয়েছে জরিপে।

দেখা গেছে, ৬০ ভাগ মার্কিনি মনে করেন, নির্বাচনের ফলাফলে প্রভাব বিস্তারের চেষ্টা করেছিল রাশিয়া। এপ্রিলের এক জরিপে ৫৬ শতাংশ মার্কিনি এ বিষয়ে একমত ছিলেন। ৪৪ শতাংশ মার্কিনি রুশ হস্তক্ষেপের বিষয়ে সন্দেহ করেন এবং মনে করেন মস্কোর এ প্রচেষ্টা থেকে সুবিধা পেয়েছেন ট্রাম্প। প্রতি ১০ জনের ৪ জন নাগরিক বিশ্বাস করেন, নির্বাচনের ফলাফলে প্রভাব বিস্তারের জন্য রাশিয়ার প্রচেষ্টায় জেনেশুনে সহায়তা করেছিল ট্রাম্পের প্রচার শিবির।

print

LEAVE A REPLY