খালেদার সঙ্গে গেলেন মিন্টু-তাবিথ আউয়াল

বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার লন্ডন সফরসঙ্গী কারা হবেন তা নিয়ে এতদিন রাজনৈতিক মহলে নানা কৌতূহল থাকলেও তা এখন স্পষ্ট। এ সফরের কারণ ‘চিকিৎসা’ বলা হলেও রাজনীতিতেও এর অনেক তাৎপর্য রয়েছে।

বিএনপির পররাষ্ট্র উইংয়ে যেসব নেতা কাজ করেন বা সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরামসহ অন্যান্য পর্যায়ের নেতাকর্মীরা কে কে নেত্রীর সফরসঙ্গী হতে পারেন তা নিয়ে রাজনৈতিক অঙ্গন এতদিন সরগরম ছিল। শেষ পর্যন্ত এই সফরে খালেদা জিয়ার সফরসঙ্গী হওয়ার সৌভাগ্য হয়েছে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু ও তার ছেলে দলের নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়ালের। খালেদা জিয়ার সঙ্গী হিসেবে আরও রয়েছেন একান্ত সচিব এবিএম আবদুস সাত্তার ও গৃহকর্মী ফাতেমা আখতার।

এছাড়া শুক্রবার দলের স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ও সহ আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা ঢাকা থেকে লন্ডন গেছেন। ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু ব্যাংকক থেকে লন্ডন গেছেন। ২০০৬ সালে ক্ষমতা হারানোর পর যুক্তরাজ্যে খালেদার এটি তৃতীয় সফর।

সর্বশেষ ২০১৫ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গিয়েছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসন। সেখানে বড় ছেলে তারেক রহমানসহ তার পরিবার এবং ছোট ছেলে প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী ও মেয়েদের নিয়ে ঈদ উদযাপন করেন তিনি। ৬৭ দিন পর আবার দেশে ফিরে আসেন খালেদা জিয়া। এর আগে ২০১১ সালে যুক্তরাষ্ট্র ঘুরে দেশে ফেরার পথে বড় ছেলে তারেককে দেখতে লন্ডনে গিয়েছিলেন খালেদা জিয়া।

লন্ডনে বর্তমানে তারেক রহমান তার স্ত্রী ডা. জোবাইদা রহমান, মেয়ে জাইমা রহমান ছাড়াও প্রয়াত আরাফাত রহমান কোকোর স্ত্রী শামিলা রহমান সিঁথি, তার দুই মেয়ে জাহিয়া রহমান ও জাফিয়া রহমানও রয়েছেন।

print

LEAVE A REPLY