শেখ মুজিবর রহমান ও শহীদ জিয়ার পরিবারের মধ্যে পার্থক্য

শেখ মুজিবর রহমানের ছোট ভাই শেখ আবু নাসের।শেখ আবু নাসেরের দুই ছেলে,একজন হচ্ছেন শেখ হেলাল বর্তমান সংসদ সদস্য এবং আরেক ছেলে হচ্ছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পরিচালক শেখ সোহেল। শেখ হেলালের মেয়ের জামাই আন্দালিব রহমান পার্থ।

শেখ সাহেবের বড় বোনের স্বামীর নাম আব্দুর রব সেরনিয়াবাত, আব্দুর রব সেরনিয়াবাতের ছেলে হচ্ছেন সাবেক হুইপ আবুল হাসনাত আবদুল্লাহ , আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহর ছেলে বর্তমান বরিশাল আওয়ামীলীগের প্রধান ব্যাক্তি সেরনিয়াবাত সাদেক আব্দুল্লাহ।

এবার আসুন শেখ সাহেবের সেজো বোনের ছেলে শেখ মনি, এবং শেখ সেলিম। শেখ মনির ছেলে হচ্ছে বর্তমান সংসদ সদস্য শেখ ফজলের নূর তাপস ।
উপরের এসব ব্যাক্তিদের চিনেন না, তাদের পরিবারের পরিচয় জানেন না এমন মানুষ বাংলাদেশে অণুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে খুঁজে পাওয়া যাবে না।
বাংলাদেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের কয়জন ভাই আছে ঠিক এই মহুর্তে গুগুলে সার্চ না দিয়ে বলতে পারবেন? জিয়াউর রহমানের ভাইয়ের ছেলে অথবা মেয়ের নাম ঠিক এখন আপনি মনে করতে পারবেন?

জিয়াউর রহমানের পাঁচ ভাইয়ের নাম আমিও ঠিক করে জানি না। কিন্তু, একবার চিন্তা করে দেখুন, এই পাঁচ জন মানুষের ভাই ছিলেন বাংলাদেশের সাবেক প্রেসিডেন্ট, উনাদের ভাবী ছিলেন বাংলাদেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী!

ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দুতে থাকলে যেখানে একজন সামান্য ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানের ভাই-বোন জামাই-শালা’র বিরুদ্ধে দূর্নীতির অহরহর অভিযোগ উঠে।সেখানে দেশের সাবেক প্রেসিডেন্টর এবং সাবেক প্রধানমন্ত্রীর একেবারে নিকট আত্মীয় হয়েও জিয়া পরিবারের কারো বিরুদ্ধে আজ পর্যন্ত চরম জিয়া বিদ্বেষী মানুষটি’ও আঙ্গুল তুলে অভিযোগ করতে পারবে না।

আমরা প্রায় সময় উদাহরণ দিয়ে থাকি, অমুক দেশের প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন সততার উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত। কিছুদিন আগের কথাই দেখেন, আমেরিকার সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সৎ ভাই-বোনরা কেনিয়ার এক অজোপাড়ায় বসবাস করেন।পৃথিবীর সব চাইতে ক্ষমতাধর মানুষের ভাই-বোনে কে কেউ চিনে না। এর জন্য ওবামা আর তার ভাই-বোনদের যুগল ছবি পোস্ট করে তাতে “ওয়াও” আর “লাভ রিয়েক্টের” প্লাবন ঘটিয়ে ফেসবুকে সয়লাব করে ফেলেছিলাম।

কিন্তু ,এই আমরা,বাংলাদেশের ভিতরে ক্ষমতার শীর্ষ বিন্দুতে থাকার সুযোগ পেয়ে’ও দূর্নীতির কালিমা মুক্ত থেকে, ক্ষমতার অপব্যাবহার না করে, লোক চক্ষুর আড়ালে একমাত্র সততা’কে পুঁজি করে জীবনা-যাপন করা প্রেসিডেন্ট জিয়া’র ভাইদের নামই জানি না। আমি বাজি ধরে বলতে পারি, অনেক বিএনপি নেতা’ও হয়তো জিয়াউর রহমানের পাঁচ ভাইয়ের ছবিও দেখে নাই।
আজ সেই অসাধারণ পরিবারের সর্ব কনিষ্টজন,প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের ছোট ভাই আহমেদ কামাল ইন্তেকাল করেছেন।
(ইন্নালিল্লাহি-রাজিউন)

নিউজটি শুনে আম্মা আমার রুমে এসে জিজ্ঞাসা করলেন,
-জিয়ার ছোট ভাই নাকি মারা গেছে,তোর কাছে উনার কোন ছবি আছে? আমি ল্যাপটপ ওপেন করে আম্মাকে আহমেদ কামাল সাহেবের ছবি দেখাচ্ছিলাম। ঘাড় ফিরিয়ে পিছনে তাকিয়ে দেখি আব্বাও উঁকি দিয়ে ছবি দেখছেন।
আম্মা বড় একটা নিঃশ্বাস ফেলে বললেন,
-জিয়ার ভাই দেখতে জিয়ার মত ছিল”
আব্বা বললেন, কেবল দেখতে জিয়ার মতই ছিল না, জীবন-যাপনে এরা সবাই জিয়ার মত সৎ ছিল। তাই উনাদের যাবিত জীবনে কোণ দুর্নীতি বা অপকর্মের কারনে পত্রিকায় বা মিডিয়ায় উনাদের ছবি আসে নাই, তাই আমাদের মত অনেকেই উনাদের নাম-ধাম জানতাম না। যেমন আজকে আহমেদ কালামের ইন্তেকাল না হলে তুমি জানতে পারতে না। এই দেশেরই সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়ার একটা ছোট ভাই ছিল। তুমি জানতে পারতে না দেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়ার আহমেদ কামাল নামের একজন দেবর ছিল।
লেখক: রাশেদ খান ( ফেসবুক থেকে )

print

LEAVE A REPLY