১০দিনের কর্মসূচি ঘোষনা করলো খালেদা জিয়া

মহান বিজয় দিবস ও বুদ্ধিজীবি দিবস উপলক্ষ্যে দশ দিনের কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বিএনপি। এর মধ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি ছাড়াও রয়েছে দলটির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার জাতীয় স্মৃতিসৌধে এবং বুদ্ধিজীবি কবরস্থানে শ্রদ্ধা নিবেদন।

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে দিবস দুটি উদযাপন উপলক্ষ্যে যৌথসভা শেষে এক সংবাদ সম্মেলনে এই কর্মসূচি ঘোষণা করেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি জানান, বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে ১৬ ডিসেম্বর ভোরে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দলটির শীর্ষ নেতারা সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানাবেন। পরে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাবেন বিএনপি প্রধান।

বিজয় দিবস উপলক্ষ্যে পরদিন ১৭ ডিসেম্বর বিএনপির ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিনের শাখা উদ্যোগে বিজয় র‌্যালি করবে দলটির নেতাকর্মীরা। এছাড়া দিবসটি উপলক্ষ্যে ১৯ ডিসেম্বর মহানগর নাট্যমঞ্চে আলোচনা সভা এবং ২৪ ডিসেম্বর রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনষ্টিটিউশন মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশ করবে বিএনপি। মুক্তিযোদ্ধা সমাবেশে দলটির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন।

বিজয় দিবস উপলক্ষে বিএনপির প্রধান কার্যালয়সহ দেশের সব কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং আলোকসজ্জা করা হবে বলে জানান মির্জা ফখরুল।

এছাড়া ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবি দিবস উপলক্ষ্যে ওইদিন ভোরে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার নেতৃত্বে দরটির শীর্ষ নেতারা মিরপুরের বুদ্ধিজীবি কবরস্থানে গিয়ে শ্রদ্ধা জানাবেন। দিবসটি উপলক্ষ্যে কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারাদেশের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় পতাকা অর্ধনমিতকরন এবং কালো পতাকা উত্তোলন করা হবে বলে জানান বিএনপি মহাসচিব। দিবসটি উপলক্ষ্যে ১৩ ডিসেম্বর মহানগর নাট্যমঞ্চে আলোচনা করবে বিএনপি।

এছাড়া দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনগুলো পৃথকভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে বলে জানান তিনি।

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের সভাপতিত্বে যৌথসভায় দলটির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, মুজিবুর রহমান সারোয়ার, সৈয়ধ মোয়াজ্জেমা হোসেন আলালম শহীধ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, আবদুস সালাম আজাদ ছাড়াও দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

print

LEAVE A REPLY