বিমানে শিশু কাঁদায় গালি দিয়ে নামিয়ে দিল ব্রিটিশ এয়ারওয়েজ

Evening taxi to Runway 6L, Toronto-Pearson

তিন বছরের এক শিশুর কান্নায় বিরক্ত হয়ে বিমান থেকে দুই ভারতীয় পরিবারকে নামিয়ে দেয়ার অভিযোগ উঠল ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের বিরুদ্ধে।

শুধু নামিয়ে দেয়াই নয়, তাদের প্রতি জাতিবিদ্বেষমূলক মন্তব্যও করা হয় বলে অভিযোগ। সম্প্রতি লন্ডন থেকে বার্লিন যাওয়ার একটি বিমানে এই ঘটনাটি ঘটে।

ওই ব্রিটিশ বিমান সংস্থায় অভিযোগ জানানোর পাশাপাশি ভারতের বেসরকারি বিমান পরিবহণমন্ত্রী সুরেশ প্রভুকে চিঠি দিয়ে ঘটনার বিবরণ জানিয়েছেন ওই শিশুর বাবা। তিনি পরিবহণ ও জাতীয় সড়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব পদমর্যাদার কর্মকর্তা।

শিশুটির বাবা চিঠিতে লিখেছেন, কিছু দিন আগে তিনি লন্ডন থেকে বার্লিন যাওয়ার একটি বিমানে উঠেছিলেন। সঙ্গে স্ত্রী এবং তিন বছরের শিশু ছিল। বিমানে ওঠার পর থেকেই বাচ্চা কাঁদতে শুরু করে। তার মা কান্না থামানোর অনেক চেষ্টা করলেও কোনো ফল হয়নি।

বিমান টেকঅফ করার সময়ও কান্না না বন্ধ হলে ক্রিউ মেম্বারদের কয়েকজন তাদের কাছে ছুটে আসেন এবং বাচ্চাকে বকাবকি করতে শুরু করেন। এতে সে আরও ভয় পেয়ে যায় এবং আরও বেশি জোরে কাঁদতে শুরু করে। তাদের পেছনের আসনে আরও একটি ভারতীয় পরিবার ছিল। তারাও বাচ্চাকে চুপ করানোর চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতেও কোনো ফল হয়নি।

তার অভিযোগ, বিমানের ওই কর্মীরা তাদের উদ্দেশে চিৎকার করে জাতিবিদ্বেষমূলক মন্তব্য ছুড়তে থাকেন। পেছনের সারিতে বসা যে পরিবার বাচ্চার কান্না থামাতে সাহায্য করছিল তাদের লক্ষ্য করেও খারাপ মন্তব্য করেন তারা। এমনকি কান্না বন্ধ না করলে জানলা দিয়ে বাচ্চাটিকে ছুড়ে ফেলার হুমকিও দেন। ওই বিমানকর্মীরা তাদের কোনো কথাই শুনছিলেন না।

তিনি জানান, এর পর বিমানকর্মীরা নিজেদের মধ্যে আলোচনা করেন এবং বিমানকে টার্মিনালে দাঁড় করান। কয়েকজন নিরাপত্তারক্ষী এসে তাদের বোর্ডিং পাস কেড়ে নেন ও ওই দুই ভারতীয় পরিবারকেই বিমান থেকে নামিয়ে দেয় বলে অভিযোগ।

ব্রিটিশ এয়ারওয়েজের মুখপাত্র বলেছেন, ‘আমরা কোনো রকম বৈষম্য বরদাস্ত করি না। খুবই গুরুত্বের সঙ্গে এই অভিযোগ বিবেচনা করা হচ্ছে।’

সূত্র : আনন্দবাজার পত্রিকা

print

LEAVE A REPLY