বেপরোয়া চালক ছিলেন তন্দ্রাচ্ছন্ন, বাস উল্টে শিশুসহ নিহত ২

গাইবান্ধার সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাটে যাত্রীবাহী নৈশকোচ উল্টে শিশুসহ ২ জন নিহত হয়েছে। আহত কমপক্ষে ১৫ জন। আজ শুক্রবার সকাল সোয়া ৬টার দিকে ধাপেরহাটের আরভি কোল্ড স্টোরসংলগ্ন এলাকায় ঢাকা-রংপুর মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

যাত্রীদের তথ্যের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, বাসের চালক তন্দ্রাচ্ছন্ন চোখে বেপরোয়া গতিতে গাড়িটি চালাচ্ছিলেন বলে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তিরা হলো পঞ্চগড় জেলা সদরের কদরকান্দি এলাকার জাবেদ আলীর ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৫) ও ঢাকার মিরপুর-১১-এর বাসিন্দা সরফরাজ মিয়া ওরফে রিপনের মেয়ে চাঁদনী আকতার (১০)। সাইফুল ইসলাম চালকের সহকারী ছিলেন। আহত যাত্রীদের পলাশবাড়ী ও পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ধাপেরহাট পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের পরিদর্শক আবদুর রশিদ বলেন, সকালে ঢাকা থেকে দিনাজপুরগামী অপু এন্টারপ্রাইজের একটি যাত্রীবাহী বাস (নৈশকোচ) ধাপেরহাটের আরভি কোল্ড স্টোরসংলগ্ন এলাকায় পৌঁছালে চালক নিয়ন্ত্রণ হারান। বাসটি সড়কের পাশে একটি আমগাছের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলে কোচের চালকের সহকারী ও এক শিশু মারা যায়। খবর পেয়ে পুলিশ ও পীরগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের লোকজন উপস্থিত হয়ে হতাহত যাত্রীদের উদ্ধার করেন।

বাসের যাত্রীদের তথ্যের বরাত দিয়ে পরিদর্শক আবদুর রশিদ জানান, বাসচালক ঘুমঘুম চোখে বেপরোয়া গতিতে গাড়িটি চালাচ্ছিলেন। যাত্রীরা একাধিকবার সাবধান করে দিলেও তিনি সেই কথা শোনেননি। এতে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গোবিন্দগঞ্জ হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আক্তারুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নিহত দুজনের লাশ ও দুর্ঘটনাকবলিত বাসটি উদ্ধার করে থানায় আনা হয়েছে।

print

LEAVE A REPLY