শার্শা সীমান্তে ৭৫ কেজি স্বর্ণসহ ৩ পাচারকারী আটক

ভারতে পাচারের সময় যশোরের সীমান্তবর্তী উপজেলা শার্শা সীমান্তে পৃথক অভিযানে ৭৫ কেজি স্বর্ণের বার জব্দ করেছে বিজিবি। এ সময় তিন পাচারকারীকে আটক করা হয়।

শুক্রবার উপজেলার শিকারপুর সীমান্ত থেকে ৭৩ কেজি ও বেনাপোলের শিকড়ী বটতলা এলাকা থেকে ২ কেজি স্বর্ণ জব্দ করা হয়।

বিজিবি সূত্র জানায়, শিকারপুর সীমান্ত থেকে শুক্রবার ভোররাতে ৭৩ কেজি ওজনের ৬২৪টি স্বর্ণের বারসহ মহিউদ্দিন (৩৫) এক নামে এক পাচারকারীকে আটক করেছে বিজিবি।

আটক মহিউদ্দিন শার্শা উপজেলার শিকারপুর গ্রামের তোজাম্মেল হোসেনের ছেলে।

৪৯ বিজিবি কমান্ডিং অফিসার লে. কর্নেল আরিফুল হক জানান, বিপুল পরিমাণ স্বর্ণের বার শিকারপুর সীমান্ত দিয়ে ভারতে পাচার হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবির একটি টহল দল শিকারপুর নারিকেল বাড়িয়া এলাকায় অভিযান চালিয়েমহিউদ্দিন নামে এক স্বর্ণ চোরাচালানিকে আটক করে। পরে তার দেহ তল্লাশি করে ৬২৪টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়। জব্দকৃত স্বর্ণের মূল্য ৩৫ কোটি ৭৭ লাখ টাকা।

জব্দকৃত স্বর্ণগুলো বেনাপোল কাস্টমস হাউসে জমা দেয়া হবে। এ ব্যাপারে বেনাপোল পোর্ট থানায় একটি মামলা হয়েছে বলে তিনি জানান।

অপর দিকে ভারতে পাচারকালে শুক্রবার সকালে বেনাপোলের শিকড়ী বটতলা এলাকা থেকে ২ কেজি স্বর্ণের বারসহ বেনাপোল পোর্ট থানার দৌলতপুর গ্রামের কাসেম আলীর স্ত্রী সফুরা বেগম (৫২) ও একই এলাকার ইব্রাহিমের ছেলে ইসরাফিলকে (২৬) আটক করেছেন বিজিবি সদস্যরা।

বিজিবি সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বিজিবি সদস্যরা শিকড়ী বটতলা এলাকায় অভিযান চালিয়ে সন্দেহভাজন দুজনকে আটক করা হয়। পরে তাদের দেহ তল্লাশি করে ১১টি স্বর্ণের বার জব্দ করা হয়েছে। যার মূল্য ৯৬ লাখ টাকা বলে বিজিবি জানায়।

print

LEAVE A REPLY