ছাত্রীকে ধর্ষণ ও মা-মেয়েকে মাথা ন্যাড়া করে দেওয়া সেই তুফান সরকারের জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট

0 ২৩

বগুড়ায় ছাত্রীকে ধর্ষণ ও মা-মেয়েকে নির্যাতনের পর মাথা ন্যাড়া করে দেয়ার ঘটনায় আলোচিত শ্রমিক লীগের বহিষ্কৃত নেতা তুফান সরকারকে দুদকের মামলায় জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। তার জামিন প্রশ্নে জারি করা রুলের যথাযথ ঘোষণা করে মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) রায় দেন বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি এস এম মজিবুর রহমানের ভার্চুয়াল বেঞ্চ।

বগুড়ার বহিষ্কৃত বহুল আলোচিত শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারের জামিন মঞ্জুর করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। রায়ের বিষয়টি সাংবাদিকদের নিশ্চিত করেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক।

আদালতে আসামি তুফান সরকারের পক্ষে শুনানি করেন রফিকুল ইসলাম সোহেল। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. সাজ্জাদ হোসেন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একেএম আমিন উদ্দিন মানিক ও সহকারী অ্যাটর্নি জেনারেল আন্না খানম কলি।

এর আগে, ১৮ অক্টোবর দুদকের দায়ের করা জ্ঞাতআয়বহির্ভুত মামলায় তাকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে তিন সপ্তাহের রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মো. নজরুল ইসলাম তালুকদার ও বিচারপতি কে এম জাহিদ সারওয়ার কাজলের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টে বেঞ্চ জামিন প্রশ্নে রুল জারি করেন। ওই রুলের চূড়ান্ত শুনানি নিয়ে এই রায় দেন আদালত।

তারও আগে এক বেঞ্চে জামিনের রুল বিচারাধীন থাকার পরও অপর এক বেঞ্চে জামিন আবেদন করায় বগুড়ার বহিষ্কৃত শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকার ছয় মাস দেশের কোনো আদালতে জামিন চাইতে পারবেন না বলে আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে জ্ঞাত আয়বহির্ভূতভাবে সম্পদ অর্জনের মামলায় তার জামিনের বিষয়ে জারি করা রুল খারিজ করে দিয়েছিলেন আদালত।

গত ১ এপ্রিল হাইকোর্টের বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত ভার্চুয়াল বেঞ্চ এ আদেশ দিয়েছিলেন। ওইদিন আদালতে দুদকের পক্ষে শুনানি করেছিলেন আইনজীবী সাজ্জাদ হোসাইন। আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী শাহ আলম সরকার।

গত বছরের ৯ সেপ্টেম্বর জ্ঞাতআয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের মামলায় বগুড়ার বহিষ্কৃত শ্রমিক লীগ নেতা তুফান সরকারকে কেন জামিন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন হাইকোর্ট। এই রুল বিচারাধীন থাকা অবস্থায় অপর একটি বেঞ্চে গত ৯ মার্চ জামিন চেয়ে নতুন করে আবেদন করেন তুফান সরকার। বিষয়টি আদালতের নজরে এলে তুফান সরকার ছয় মাস কোনো আদালতে জামিন চাইতে পারবেন না বলে আদেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

তুফান সরকারের বিরুদ্ধে ২০১৮ সালের ৩১ ডিসেম্বর বগুড়া সদর থানায় মামলা করে দুদক। বগুড়ায় মা ও মেয়েকে নির্যাতনের পর মায়ের মাথা ন্যাড়া করার অভিযোগের মামলায় ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই থেকে গ্রেফতার হন তুফান সরকার। দুদকের মামলায় ২০১৯ সালের ১৭ জুলাই তাকে শ্যোন এরেস্ট দেখানো হয়। বর্তমানে তিনি কারাগারে আছেন।

পুর্বপশ্চিমবিডি

Comments
Loading...