ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় আতঙ্ক, মোড়ে মোড়ে পুলিশ-বিজিবি

0 ৮৭

আতঙ্ক। থমথমে অবস্থা। জনসমাগম কম। শহরজুড়ে ছড়িয়ে রয়েছে বিক্ষোভের নানা আলামত। গত কয়েকদিনে এই শহরে ঝরেছে রক্ত, নিভে গেছে কয়েকটি প্রাণ। গত শুক্রবার বিকাল থেকে গতকাল পর্যন্ত বিক্ষোভ, গুলি আর প্রাণহানির কারণে আলোচনায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া। গতকাল রাত থেকে নামকাওয়াস্তে চট্টগ্রাম-সিলেট রুটে ট্রেন চালু হলেও শিডিউল ঠিক করা সম্ভব হয়নি। রেলস্টেশনে ভাংচুরের পর এখনো চালু হয়নি ব্রাহ্মণবাড়িয়া রেল স্টেশন।

যে কারণে ট্রেন যোগাযোগ নেই এই শহরের সঙ্গে । গাড়িতেও যাত্রী কম। ঢাকার কমলাপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়াগামী রয়েল কোচ নামক বাসে উঠেই ভয়ে ভয়ে এক যাত্রী জানতে চাইলেন, ওখানে কোনো সমস্যা হবে নাতো!

শহরে ঢুকতেই চোখে পড়ে পথে পথে ছড়িয়ে রয়েছে ভাঙ্গা ইট, পাথর, আগুনের আলামত। হঠাৎ গতি থামিয়ে দেন রিকশাচালক এমরান আলী। বুঝার চেষ্টা করেন সামনে কোনো ঝামেলা হচ্ছে নাকি! এমরান জানান, পুলিশ, বিজিবি দেখলেই মনে হয় কোনো একটা ঝামেলা হচ্ছে। অনেকগুলো মানুষ মারা গেছে, বিভিন্ন জায়গায় হামলা হওয়ার পর ভয়ে ভয়ে থাকেন তিনি।
পুলিশ লাইন্স থেকে হাসপাতাল রোড, কুমারশীল মোড়সহ গুরুত্বপূর্ণ সব স্থানে পুলিশ ও বিজিবি অবস্থান করছে।
সন্দেহ হলেই থামিয়ে তল্লাশি ও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে পথচারীদের। কিছু সময় পরপর সাইরেন বাজিয়ে টহল দিচ্ছেন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা।

কুমারশীল মোড়ের ব্যবসায়ী রফিক আহমেদ জানান, শহরে জনাসমাগম অনেক কমে গেছে। সবার মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।
আন্দোলনকারীদের অনেকে এখনো বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। টিয়ারগ্যাস ও গুলিতে আহত হয়েছেন তারা। জামিয়া ইসলামিয়া ইউনুছিয়া মাদ্রাসার মুফতি মোবারক উল্লাহ জানান, হামলা, মামলা ও গ্রেপ্তার আতঙ্কে রয়েছেন সাধারণ মানুষ। আহতরাও একই আতঙ্কে বলে জানান তিনি।
সাধারণ মানুষ অভিযোগ করেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গত শুক্রবার থেকে ইন্টারনেট ছাড়াও মোবাইলফোনের নেটওয়ার্কেও সমস্যা করছে। শহরজুড়ে গ্যাসও নেই। সোমবার সন্ধ্যায় গ্যাস আসে। সব মিলিয়ে আতঙ্ক ও দুর্ভোগের শহরে পরিণত হয়েছে ব্রাহ্মণবাড়িয়া।
এদিকে আজ পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি আনোয়ার হোসেন ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেছেন, হামলা, সংঘর্ষের সুষ্ঠু তদন্ত হবে। জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করবে পুলিশ। ইতিমধ্যে নাশকতার তদন্তের জন্য রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি জাকির হোসেনকে প্রধান করে কমিটি গঠন করা হয়েছে। সাত কর্মদিবসের মধ্যে এই কমিটি তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেবে বলে জানান তিনি।

mzamin

Comments
Loading...