৯৯৯ এ ফোন দিয়ে শতাধিক যাত্রী রক্ষা পেলেন

0 ১২৩

কালবৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়ে বুধবার রাতে দিকভ্রান্ত হন ট্রলারে থাকা শতাধিক যাত্রী। জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে এক যাত্রীর ফোন কলে তাদের উদ্ধার করে নিরাপদে তীরে পৌঁছে দেয় গাইবান্ধার বালাছিঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির পুলিশ।

বুধবার রাত সাড়ে আটটায় নাঈম নামে এক যাত্রী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করে জানান, একটি ইঞ্জিন চালিত নৌযান যোগে (ট্রলার) নারী শিশু সহ ১২০ জন যাত্রী ও ৭ টি মোটরবাইক নিয়ে তারা সন্ধ্যে ৬ টায় জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ থেকে দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেছিলেন।

যমুনা নদী থেকে ব্রহ্মপুত্র নদের গাইবান্ধা জেলার অংশে প্রবেশের পর তারা কালবৈশাখী ঝড়ের কবলে পড়েন। তখন ঝড়ো হাওয়ায় তীব্র স্রোতে তাদের নৌযানটি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে দিগবিদিক ভাসছিল। সেসময় নৌযাত্রীদের মধ্যে শঙ্কা ও ভীতিকর পরিস্থিতির তৈরি হয়। তখন সাহায্য চেয়ে কলার ৯৯৯ এ ফোন করেন। কিন্তু তাদের সঠিক অবস্থান জানাতে পারেননি।

৯৯৯ তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি নৌ পুলিশ নিয়ন্ত্রণ কক্ষ ও গাইবান্ধা জেলা পুলিশ নিয়ন্ত্রণ কক্ষে জানিয়ে উদ্ধারের ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানায়।

একইসঙ্গে ৯৯৯ কলারের সঙ্গে তাদের সঠিক অবস্থান জানতে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রক্ষা করে চলে। এক পর্যায়ে কলার জানান, তাদের নৌযানটি স্রোতের তোড়ে একটি চরে আটকে গেছে। ৯৯৯ গাইবান্ধার বালাছিঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জের সঙ্গে কলারের কনফারেন্স করিয়ে দেয়ার পর কলারের বর্ণনা অনুযায়ী তাদের অবস্থান চিহ্নিত করে বালাছিঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির একটি উদ্ধারকারী দল রওনা দেয়।

পরে বালাছিঘাট নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এস আই মাজেদুর রহমান ৯৯৯ কে ফোনে জানান, তারা ব্রহ্মপুত্র নদের মানিক্কর চরে আটকে পড়া নৌযানের যাত্রীদের উদ্ধার করে পথ দেখিয়ে নিরাপদে তীরে পৌঁছে দিয়েছেন।

Comments
Loading...