৫৬ লাখ টাকা ‘আত্মসাৎ করেন’ এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ

0 ৩৫
জালিয়াতি ও প্রতারণার মাধ্যমে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ ড. হুমায়ুন কবির মজুমদারের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার বিকেলে পাবনা সদর থানায় দুদক পাবনা আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপসহকারী পরিচালক মোস্তাফিজুর রহমান বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার এজাহারের বরাত দিয়ে দুদক পাবনা আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপপরিচালক মোজাম্মেল হক জানান,  অসৎ উদ্দেশ্যে প্রতারণা, জালিয়াতির মাধ্যমে ভুয়া আবেদন ও ভাউচার তৈরি করে অধ্যক্ষ হুমায়ুন কবীর মজুমদার নিজেই অনুমোদন করে কলেজের ছাত্র সংসদ তহবিল, উন্নয়ন তহবিল, বিবিধ তহবিল এবং ভর্তি কার্যক্রম ও ফরম পূরণ তহবিলের  ৫৬ লাখ ৮ হাজার ৯৮৬ টাকা অগ্রণী ব্যাংক কলেজ গেট শাখা থেকে উত্তোলনের পর আত্মসাৎ করেছেন।

২০১৭ সাল থেকে দীর্ঘ কয়েক দফা তদন্তে বিষয়টি প্রমাণিত হওয়ায় দুদক প্রধান কার্যালয়ের নির্দেশে সোমবার এ মামলা দায়ের করা হয়।

তিনি আরো জানান, কলেজটির ছাত্র সংসদের কার্যক্রম দীর্ঘদিন বন্ধ থাকলেও অধ্যক্ষ ছাত্র সংসদ তহবিল থেকে পাঁচ ছাত্রলীগ নেতা ও কর্মচারীর নামে ভুয়া বিল ভাউচার তৈরি করে ১৫টি চেকের মাধ্যমে ৫ লাখ ২ হাজার টাকা, উন্নয়ন তহবিলে কমিটির সুপারিশ ও কোটেশন ছাড়াই বিল ভাউচার করে ৩৮টি চেকের মাধ্যমে ১৯ লাখ ৯৯ হাজার ২৩৮ টাকা এবং বিবিধ তহবিল থেকে ভুয়া আবেদন ও বিল ভাউচার নিজেই অনুমোদন ৩৭টি চেকের মাধ্যমে ১৩ লাখ ৪ হাজার ৪২ টাকা উত্তোলন করে আত্মসাৎ করেন।

দুদক জানয়, এ অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে এ ছাড়া উন্নয়ন তহবিলের বেসরকারি আদায় তহবিলের দুটি হিসাব থেকে ২৮টি চেকের মাধ্যমে ১৮ লাখ ৩ হাজার ৭০৬ টাকা আত্মসাতের প্রমাণ মিলেছে।

অধ্যক্ষের ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির আরো বিভিন্ন বিষয়ে তদন্ত চলছে। মামলার প্রয়োজনে তাকে যেকোনো সময় গ্রেপ্তার করা হবে বলেও জানান তিনি।

ড. হুমায়ুন কবির মজুমদার ২০১৫ সাল থেকে পাবনা সরকারি এডওয়ার্ড কলেজের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

Comments
Loading...