আন্তর্জাতিক ফ্লাইট ৫ মে পর্যন্ত বন্ধ, তবে…

0 ১১২

সিভিল এভিয়েশন অথরিটি আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের ক্ষেত্রে তাদের আরোপিত নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা আগামী ০৫/০৫/২০২১ তারিখ পর্যন্ত বর্ধিত করেছে। এর আওতায় বর্তমানে….

★শুধু বাংলাদেশ, বাহরাইন, চায়না, কুয়েত, সৌদি আরব, ওমান, সিঙ্গাপুর, কাতার এবং ইউএই এর এয়ারলাইন্সসমূহ অনুমতি থাকা সাপেক্ষে ফ্লাইট পরিচালনা করছে।

★বাংলাদেশ থেকে বাহরাইন, চায়না, কুয়েত, সৌদি আরব, ওমান, সিঙ্গাপুর, কাতার এবং ইউএই যাওয়া যাবে এবং ঐসব দেশে ট্রানজিট নিয়ে অন্য যে কোন দেশে যাওয়া যাবে, যদি না বাংলাদেশ থেকে আগত যাত্রী গ্রহণে ট্রানজিট বা গন্তব্য দেশের কোন নিষেধাজ্ঞা না থাকে।

★বাহরাইন, চায়না, কুয়েত, সৌদি আরব, ওমান, সিঙ্গাপুর, কাতার বা ইউএই থেকে বাংলাদেশে যাত্রার সময় এয়ারলাইন্সসমূহ কোন ট্রানজিট যাত্রী ফ্লাইটে নিবে না। শুধুমাত্র ঐ দেশগুলি থেকে যাত্রা শুরু করা যাত্রীরাই বাংলাদেশগামী ফ্লাইটে উঠতে পারবেন৷

★আকাশযাত্রা শুরুর ৭২ ঘন্টা বা তার কম সময় হাতে থাকতে নমুনা দিয়ে পিসিআর টেস্ট করিয়ে কোভিড নেগেটিভ সনদপ্রাপ্ত হলেই কেবল বাংলাদেশ থেকে বিদেশগমনের জন্য এয়ারপোর্টে আসা যাবে৷ ১০ বছরের কম বয়সী শিশুদের জন্য কোভিড টেস্ট লাগে না৷ তবে আপনি যে দেশে যাচ্ছেন বা যে দেশে ট্রানজিট নিচ্ছেন সে দেশে প্রবেশের জন্য কোভিড টেস্টের চাহিত মেয়াদ আরও কম হতে পারে। ১০ বছরের কম বয়সী শিশুদের জন্যও কোভিড সনদ চাওয়া হতে পারে। সে দেশের চাহিদা আগেই জেনে নিয়ে সময় হিসাব করে কোভিড টেস্ট করান।

★বিদেশ থেকে বাংলাদেশে আসতে হলেও আকাশযাত্রা শুরুর ৭২ ঘন্টা বা তার কম সময়ের মধ্যে নমুনা দিয়ে পিসিআর টেস্ট করিয়ে নেগেটিভ রিপোর্টপ্রাপ্ত হয়ে আসতে হবে৷ যারা ইতোমধ্যে দুই ডোজ ভ্যাক্সিন নিয়েছেন তাদেরকেও একই নিয়মে পিসিআর টেস্ট করিয়েই আসতে হবে।

★বিদেশ থেকে বাংলাদেশে আসা যাত্রীদের মধ্যে যাদের দুই ডোজ ভ্যাক্সিন (প্রমাণপত্র দেখাতে হবে) নেয়া আছে এবং যাত্রা শুরুর ৭২ ঘন্টার মধ্যে কৃত পিসিআর টেস্টের নেগেটিভ রিপোর্ট আছে তারা ১৪ দিনের হোম কোয়ারেন্টাইনে যাবেন৷ স্থানীয় প্রশাসন তাদের হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করবে।

★তবে বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে যাদের এক ডোজ ভ্যাক্সিন নেয়া আছে অথবা ভ্যাক্সিন দেয়া নেই তারা বাধ্যতামূলকভাবে তিন দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন। উল্লেখ্য যে, সরকার নির্ধারিত ও বাংলাদেশ সেনাবাহিনী পরিচালিত কোয়ারেন্টাইনে আসন সংখ্যা সীমিত৷ তাই বাংলাদেশের উদ্দেশ্যে যাত্রার আগে চেকইন করার সময়েই সরকার নির্ধারিত ৫২ টি হোটেলের যে কোন একটিতে তিন দিন নিজ খরচে থাকার জন্য বুকিং এর প্রমাণপত্র দেখাতে হবে৷ (৫২ টি হোটেলের তালিকা এখানে দেয়া হল।) তিন দিন পর ঐ যাত্রীদের কোভিড টেস্ট করানো হবে এবং রিপোর্ট নেগেটিভ হলে তারা পরবর্তী ১১ দিন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন৷

সতর্কতাঃ
বিদেশ যাওয়ার আগে কোভিড টেস্ট করিয়ে অনেকেই কোভিড পজিটিভ (অর্থাৎ করোনাভাইরাসে আক্তান্ত) হয়ে যাচ্ছেন। আক্রান্ত হলেও অধিকাংশ ব্যক্তির মধ্যে কোন লক্ষণ থাকে না। অথচ দুই বা তিন সপ্তাহের আগে কোভিড নেগেটিভ হওয়া যায় না। ফলে যথাসময়ে বিদেশ যাওয়া সম্ভব হয় না। তাই যাদের শীঘ্র বিদেশ যাওয়া প্রয়োজন হবে, তারা নিজ স্বার্থেই যথাযথভাবে মাস্ক ব্যবহার করুন এবং জনসমাগম এড়িয়ে চলুন৷ পরিবারের সদস্যদেরকেও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে বলুন৷

Comments
Loading...