‘কাউয়া মুক্ত আওয়ামী লীগ চাই’

0 ১৯

রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭। শংকর আবাসিক এলাকার বিক্রমপুর মিষ্টি দোকানের সামনে ৩০ ফুটেরও অধিক দৈর্ঘ্যের বিশাল একটি বিলবোর্ড। বিলবোর্ডে লেখা, ‘দাড় কাউয়া মুক্ত মোহাম্মপুর থানা আওয়ামী লীগ চাই।’ লেখাটির ডানপাশেই বিশাল একটি দাড় কাকের ছবি আর মোহাম্মপুর বলতে মোহাম্মদপুর থানাকে বোঝানো হয়েছে।

বিলবোর্ডের ছবিটি শনিবার সকাল থেকে ভাইরাল হয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে।
ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে ‘দাড় কাউয়া মুক্ত মোহাম্মদপুর থানা আওয়ামী লীগ চাই’ লেখা সম্বলিত একটি বিলবোর্ড। শনিবার বিলবোর্ডটির ছবি ফেসবুকে শেয়ার করে এফ এম শাহীন লেখেন:- দারুণ আইডিয়া–হাহাহাহাহা।

এরপর আনোয়ার হোসেন, বদরুল আলম মজুমদারসহ অনেকেই ছবিটি নিজের ফেসবুক ওয়ালে শেয়ার করেন। ফেসবুকে এমন ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর আলোচনায় এসেছে ‘কাউয়া’।

গত বছর সিলেটে আওয়ামী লীগের এক কর্মসূচিতে অংশ নিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন, ‘আওয়ামী লীগে কাউয়া ঢুকে গেছে।’

এরপর থেকে তার দেয়া উপাধি অনুযায়ী দলে অনুপ্রবেশকারীদের ‘কাউয়া’ বলে অভিহত করেন দলের ত্যাগী নেতারা। দলের তৃণমূল মনে করে, দলের মধ্যে যেসব অনুপ্রবেশকারী ঢুকে থাকে, এ বিষয়ে সুনির্দিষ্ট জরিপ হওয়া প্রয়োজন।

‘কাউয়া’ বলতে যারা ২০০৯ সালে ক্ষমতায় আসার পর বিএনপি-জামায়াত, বিভিন্ন বাম দল এবং জাতীয় পার্টি থেকে দলে এসে দীর্ঘ দশ বছরে তাদের বিপুল অর্থ ভাণ্ডার তৈরি করেছেন তাদের বোঝানো হয়ে থাকে।

Comments
Loading...