কোনো দল নির্বাচনে না এলে কিছু করার নেই: প্রধানমন্ত্রী

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ২০১৪ সালের নির্বাচন ঠেকাতে পারেনি, এবারও সময়মতো নির্বাচন হবে, কেউ ঠেকাতে পারবে না। বিএনপি নির্বাচনে আসুক না আসুক সময়মতোই নির্বাচন হবে, কেউ আটকাতে পারবে না।

তিনি বলেন, নির্বাচন করা না-করা দলীয় সিদ্ধান্ত, কোনো দলনির্বাচনে না এলে আমাদের কিছু করার নেই।

সোমবার বিকাল সাড়ে ৪টায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

বিএনপির নেতৃত্বে কি একজন লোকও নেই ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হওয়ার এমন প্রশ্ন তুলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, এই দলের কি এতই দৈন্যদশা যে অন্য কাউকে ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান করতে পারত না।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আগামী মার্চ মাসে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হবে। এ সময় তিনি আজ থেকে ফোরজি যুগে পদার্পণের সুখবর দেন।

খালেদা জিয়াকে বিএনপির কাছের লোকেরাই মামলা দিয়েছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, রায় দিয়েছেন আদালত, এখানে সরকারের কিছু করার নেই।

সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, তারেক রহমানের দুর্নীতি সর্বজনবিদিত। ক্ষেত্র বিশেষে বা ব্যক্তিবিশেষে দুর্নীতি করলে সমালোচনা হয় না।

সংবাদ সম্মেলনে ৫৭ ধারা আইন বাতিল করে নতুন করে ৩২ ধারা আইনের মাধ্যমে গণমাধ্যমকে অবরুদ্ধ করা হচ্ছে। এমন প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ধারার অপপ্রয়োগ করার সুযোগ নেই। কেউ অপরাধ না করলে তার ভয় পাওয়ার কি আছে?

অপকর্ম না করলে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন নিয়ে শঙ্কার কিছু নেই বলে উল্লেখ করেন তিনি।

প্রশ্নফাঁসের বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রী আর সচিব গিয়ে তো প্রশ্নফাঁস করেনি, তাদের কেন সরে যেতে হবে, যারা করেছে তাদের ধরিয়ে দেন, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেব। এমসিকিউ বন্ধ করে দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, প্রশ্নফাঁস নতুন কিছু না, যুগ যুগ ধরে হচ্ছে। প্রশ্নফাঁস হচ্ছে ২০ মিনিট বা এক ঘণ্টা আগে, এত ট্যালেন্ট কোন ছাত্র যে এই সময়ের মধ্যে পড়ে মুখস্ত করে লিখবে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, সংসদ সদস্য, সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারী ও সিনিয়র সাংবাদিকরা।

ইতালি ও ভাটিকান সিটিতে সদ্যসমাপ্ত সফর নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলন করছেন প্রধানমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, ১১-১৪ ফেব্রুয়ারি চার দিনের সরকারি সফরে প্রধানমন্ত্রী ইতালি ও ভাটিকান সিটিতে যান। আন্তর্জাতিক কৃষি উন্নয়ন তহবিলের (আইএফএডি) প্রেসিডেন্ট গিলবার্ট এফ হংবো-এর আমন্ত্রণে আইএফএডির বার্ষিক পরিচালনা পরিষদের বৈঠকে তিনি অংশ নেন।

পোপ ফ্রান্সিসের আমন্ত্রণে ভাটিকান সিটির হলি সি সফর করেন শেখ হাসিনা। পোপ ও ভাটিকান সিটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কার্ডিনাল পিয়েত্র পারোলিনের সঙ্গে তিনি সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন।

এরপর গত শনিবার রাতে দেশে ফেরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

Comments
Loading...