টাঙ্গাইল-৪ আসনে উপ-নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা সুপ্রিম কোর্টের,ইসির আবেদনের শুনানি ২ নভেম্বর

0

k-siddik2টাঙ্গাইল-৪ আসনের উপনির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করেছেন সুপ্রিম কোর্ট। কৃষক-শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ স্থগিত চেয়ে নির্বাচন কমিশনের (ইসি) করা আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে মঙ্গলবার আপিল বিভাগের অবকাশকালীন চেম্বার বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেন এই আদেশ দেন। আগামী ১০ নভেম্বর টাঙ্গাইল-৪ (কালিহাতি) আসনের উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণের নির্ধারিত দিন ছিল। এর আগে সোমবার বিকালে সুপ্রিমকোর্টের আপিল বিভাগের সংশ্লিষ্ট শাখায় কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র গ্রহণে হাইকোটের নির্দেশের বিরুদ্ধে এ আবেদন করে ইসি। আজ আবেদনটি গ্রহণ করে তা শুনানির জন্য আপিল বিভাগের নিয়মিত বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন চেম্বার বিচারপতি। ২ নভেম্বর এ বিষয়ে নিয়মিত বেঞ্চে শুনানির দিনও ঠিক করে দেয়া হয়। একই সঙ্গে নির্ধারিত ১০ নভেম্বর টাঙ্গাইল-৪ আসনের উপনির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করা হয়। ইসির আইনজীবী ব্যারিস্টার ইয়াসিন খান বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এর আগে ২১ অক্টোবর এক রিট আবেদনের শুনানি শেষে বিচারপতি মিফতাহ উদ্দিন চৌধুরী ও বিচারপতি কাজী ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত অবকাশকালীন বেঞ্চ কাদের সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র গ্রহণের নির্দেশ দেন। পাশাপাশি রুল জারি করেন। এরপর সোমবার হাইকোর্টের এ আদেশ স্থগিতের আবেদন জানায় ইসি। ঋণ খেলাপের অভিযোগে ১৩ অক্টোবর মঙ্গলবার রিটার্নিং কর্মকর্তা কাদের সিদ্দিকী ও তার স্ত্রী নাসরিন সিদ্দিকীর মনোনয়নপত্র বাতিল ঘোষণা করেন। মনোনয়ন বাতিলের কারণ হিসেবে নির্বাচন কমিশন জানিয়েছে, সোনার বাংলা প্রকৌশলী সংস্থার নামে অগ্রণী ব্যাংকে ১০ কোটি ৮৮ লাখ টাকা ঋণ রয়েছে। কাদের সিদ্দিকী এ প্রতিষ্ঠানের চেয়ারম্যান এবং নাসরিন কাদের সিদ্দিকী পরিচালক। এরপর ১৬ অক্টোবর এ দুই নেতা রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ইসিতে আপিল আবেদন করেন। ১৮ অক্টোবর প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী রকিবউদ্দীন আহমদের নেতৃত্বাধীন পাঁচ সদস্যের নির্বাচন কমিশন কাদের সিদ্দিকীর আপিল খারিজ করে রায় দেন। নির্বাচন কমিশন ও রিটার্নিং কর্মকর্তার সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে কাদের সিদ্দিকী

Comments
Loading...