‘ডিজিএফআই অথবা র‌্যাব দিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক’

0 ১৬

Hazariফেনীর বহুল আলোচিত আওয়ামীলীগ নেতা জয়নাল হাজারী বলেছেন, একরাম হত্যা ঘটনা ভিন্ন খাতে নেয়ার জন্য আমার নাম বলা হয়েছে। তবে একরাম খুনের ব্যাপারে আমার জানা তথ্য সত্য প্রমাণিত হয়েছে। ওইসব তথ্যই পত্রিকায় বেরিয়েছে। সূতরাং আমাকে রিমা-ে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার দাবি হাস্যকর। তবু বলছি, আমাকে যেহেতু রিমান্ডে নেওয়ার কথা নিজাম বলেছে, তাহলে আমাকে আসামি করা হয়নি কেন? মামলা দেওয়া হলো বিএনপি নেতা মাহতাব উদ্দিন চৌধুরী মিনারের নামে। তিনি বলেন, ডিজিএফআই অথবা র‌্যাব দিয়ে নিজাম এবং  জিজ্ঞাসাবাদ করা হোক। পুলিশের প্রতি আমার আস্থা নেই। নির্দিষ্ট দিন ও তারিখ দিলে আমি নিজেই হাজির হব। তিনি বলেন, হত্যাকা-ের সঙ্গে নিজাম হাজারী যে জড়িত, তা এরই মধ্যে পরিষ্কার হয়েছে। গুলি করেছে নিজামের মামাতো ভাই আবিদ। গ্রেপ্তারকৃত ক্যাডাররা সবাই নিজামের লোক। একই সঙ্গে সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে দ্রুত সময়ের মধ্যে খুনিদের গ্রেপ্তার করে আইনের আওতায় আনার জন্য প্রধানমন্ত্রীকেও ধন্যবাদ জানান তিনি। শনিবার রাতে একটি বেসরকারি টেলিভিশন চ্যানেলে টক শোতে জয়নাল হাজারী এসব কথা বলেন। সম্প্রতি একটি দৈনিকে নিজাম হাজারীকে জড়িয়ে প্রকাশিত সংবাদের কারণেই একরামকে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেন হাজারী। ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক জয়নাল হাজারী বলেন, ওই দৈনিকে পর পর দুদিনে নিজাম হাজারী সম্পর্কে চাঞ্চল্যকর সংবাদের তথ্যগুলো একরাম জানত। নিজাম হাজারী মনে করেন, একরামই তথ্যগুলো সাংবাদিকদের কাছে সরবরাহ করেছে। এ কারণে নিজাম ক্ষুব্ধ হয়ে একরামকে হত্যার পরিকল্পনা করে। যদিও আগে থেকেই বিরোধ ছিল। ওই সংবাদের পর বিরোধ চরম আকার ধারণ করে। জয়নাল হাজারী বলেন, একরাম হক হত্যাকা-ের মূল পরিকল্পনাকারী নিজাম হাজারীর ইঙ্গিতেই ফেনীর পুলিশ ওঠবস করে। সে এই হত্যাকা-ের পরিকল্পনায় জড়িত থাকার পরও পুলিশ তাকে প্রটোকল দিয়ে ফুলগাজী থেকে ফেনীতে নিয়ে আসে। শনিবারের দৈনিক পত্রিকাগুলোর শিরোনাম পড়ে এ ঘটনায় নিজাম হাজারী জড়িত থাকার প্রমাণ করার চেষ্টা করেন জয়নাল হাজারী। এ সময় তিনি বলেন, পত্রিকাগুলো যেভাবে লিখেছে, তার পর আর নতুন করে তথ্য বের করার কী থাকে? জয়নাল হাজারী বলেন, নিজাম হাজারীর বুদ্ধিদাতা জাহাঙ্গীর আদেলকে না ধরলে হবে না। তাকে ধরলে সব বেরিয়ে আসবে। আলাউদ্দিন নাসিমকে উদ্দেশ করে জয়নাল হাজারী বলেন, খুনিকে বাঁচানোর চেষ্টা করো না। একরামের বিষয়ে যদি কঠোর থাকো, তবে আমি সমর্থন দেব। খুনিকে প্রশ্রয় দিলে খুনের দায় তোমাকে নিতেই হবে। একরামকে নিজের হাতে তৈরি উল্লেখ করে তিনি বলেন, একরামের খুনিদের বিচার না করলে ফেনীতে আওয়ামী লীগের রাজনীতি শেষ হয়ে যাবে। তিনি বলেন, গত ১৫ দিনে ২০ জন মানুষ মারা গেছে। গত কয়েক বছর যেসব ঘটনা ঘটেছে, তার কোনোটার প্রতিকার হয়নি। এখন অন্তত একটি ঘটনার সুরাহা হওয়া দরকার। নিজাম হাজারী তার নিজের লোক ছিল এমন প্রশ্ন করা হলে জয়নাল হাজারী বলেন, নিজাম হাজারী চট্টগ্রামে নানা অপরাধ করে ফেনীতে আশ্রয় নিয়েছিল। সেগুলো আমার জানা ছিল না। তার জীবনের সবকিছুই প্রতারণা। তবে তাকে আমি সন্দেহ করতাম। এ জন্য দলে ঢুকাইনি। দলের প্রাথমিক সদস্যও করিনি। দলের মধ্যে ঢুকে সে দলকে তছনছ করে দিয়েছে।

Comments
Loading...