বিএনপি নেতাকে মুখ বেঁধে তুলে নেয়ার অভিযোগ

0 ১৩

লক্ষ্মীপুরে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে স্থানীয় বিএনপি নেতা ব্যবসায়ী মো. সামছুদ্দিনকে তুলে নেয়ার অভিযোগ করেছেন তার পরিবার। ৩ দিন ধরে তার কোন খোঁজ না পেয়ে উদ্বেগ উৎকণ্ঠায় রয়েছেন স্বজনরা।

আজ শুক্রবার সকালে স্থানীয় একটি পত্রিকা কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে ওই ব্যবসায়ীকে ফিরে পাওয়ার দাবী জানান তারা। নিখোঁজ ব্যবসায়ী সামছুদ্দিন সদর উপজেলার চন্দ্রগঞ্জ ইউনিয়নের আমানী লক্ষ্মীপুর গ্রামের মৃত গোলাম মাওলার ছেলে ও স্থানীয় ৩ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি। তিনি পার্শ্ববর্তী চাটখিল উপজেলার দেলিয়াই বাজারের কাপড় ব্যবসায়ী।

সংবাদ সম্মেলনে সামছুদ্দিনের স্ত্রী ফাতেমা বেগম মায়া ও কলেজ পড়ুয়া মেয়ে মিশু আক্তার বলেন, সামছুদ্দিন গেল বুধবার (১৪ই ফেব্রুয়ারি) দুপুরে লক্ষ্মীপুর আদালত থেকে একটি মামলায় হাজিরা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন।

এ সময় ঝুমুর সিনেমা হল এলাকায় পৌঁছালে ৪-৫জন লোক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তার মুখ বেঁধে মাইক্রোবাস যোগে অজ্ঞাত স্থানে তুলে নিয়ে যায়।
ঘটনার পরদিন বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সামছুদ্দিন তার মুঠোফোন থেকে কল করে পরিবারের কাছে জানান, একটি ভবনের ৪ তলায় তাকে আটক করে রাখা হয়েছে। এরপর মোবাইল সংযোগ বন্ধ হয়ে যায়।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কাছে এবং বিভিন্ন স্থানে খোঁজ করে তার কোন সন্ধান না পেয়ে উৎকণ্ঠায় রয়েছেন সামছুদ্দিনের পরিবার। তাকে ফিরে পেতে পরিবারটি সংবাদ সম্মেলনে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা চেয়েছেন।

এ ঘটনায় ১৫ই ফেব্রুয়ারি লক্ষ্মীপুর সদর থানায় একটি সাধারণ ডায়রি করা হয়েছে বলে জানান পরিবার। সাধারণ ডায়রি নং ( ৬৮৯)।
সামছুদ্দিনকে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী পরিচয়ে তুলে নেয়া হয়েছে অভিযোগ করে জেলা বিএনপির সভাপতি ও বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা আবুল খায়ের ভূঁইয়া ও কেন্দ্রীয় বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী অনতিবিলম্বে তাকে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করার দাবী জানান। এভাবে বিএনপি নেতাকর্মীদের গুম, খুন এবং মামলা ও হামলা করে আন্দোলন দমনে যাবেনা বলে হুশিয়ারি দেন তারা।

পুলিশ সুপার আ স ম মাহাতাব উদ্দিন জানান, এ বিষয়ে কোন তথ্য নেই। তবে পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় একটি নিখোঁজ ডায়েরী করা হয়েছে। তদন্ত চলছে। তদন্তের পর আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

উৎসঃ মানবজমিন

Comments
Loading...