বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সুরক্ষায় কমিটি

0 ৩০

Dr Kamalঢাকা: সংবিধান বিশেষজ্ঞ ড. কামাল হোসেনকে আহ্বায়ক করে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা সুরক্ষায় একটি সর্বদলীয় কমিটি গঠন করেছেন সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবীরা। বিচারপতিদের অভিসংশন ক্ষমতা সংসদের হাতে ফিরিয়ে দেয়ার সরকারি পরিকল্পনা বাস্তবায়ন যখন সময়ের ব্যাপার মাত্র তখন এই কমিটি গঠনের ঘোষণা দিলেন দেশের শীর্ষ আইনজীবীরা।

এ কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক হয়েছেন- ব্যারিস্টার এম আমিরুল ইসলাম, সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন, ব্যারিস্টার রোকনউদ্দিন মাহমুদ ও অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন।

সদস্য সচিব করা হয়েছে ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিক খোকনকে।

মঙ্গলবার ‘স্বাধীন বিচার বিভাগ, বিচারক নিয়োগ পদ্ধতি, বিচারকের দায়বদ্ধতা ও অভিশংসন’ শীর্ষক একটি আলোচনা সভা থেকে এ কমিটি গঠনের ঘোষণা দেয়া হয়।

এ আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ গণতান্ত্রিক আইনজীবী সমিতির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী। সভা পরিচালনা ওই সংগঠনের সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট হেলাল উদ্দিন।

উল্লেখ্য, অসদাচরণ বা অসামর্থ্যের কারণে কোনো বিচারপতিকে অপসারণের জন্য অভিশংসনের ক্ষমতা সংসদে ফিরিয়ে আনার জন্য সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী আনতে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন সরকার। গত ৭ সেপ্টেম্বর রোববার সংবিধান সংশোধন বিল সংসদে উত্থাপন করা হয়েছে এবং তা সংসদ সদস্যদের অকুণ্ঠ সমথনও পেয়েছে।

তবে মঙ্গলবার আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সুরঞ্জিত সেন গুপ্ত দাবি করেছেন, এ আইনের ফলে বিচারবিভাগের স্বাধীনতা কোনো মতেই সংসদের হাতে আবদ্ধ হবে না। বিচারপতিকে অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতেও যাচ্ছে না। কারণ অভিশংসন আর অপসারণ এক নয়। অপসারণের ক্ষমতা রাষ্ট্রপতির হাতেই থাকছে।

আইনজীবীরা মনে করছেন, বিচারপতিদের ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য বর্তমান সুপ্রিম জুডিশিয়াল কাউন্সিলই যথেষ্ট। এবং তারা ভালোই কাজ করছেন। এখন এই ক্ষমতা সংসদের হাতে গেলে বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ক্ষুণ্ণ হবে।

Comments
Loading...