মুসা ইব্রাহীমের প্রতারনা, প্রথম এভারেস্টজয়ী তিনি নন, আদালতে মামলা চলছে

0 ৩০

musaডেস্ক রিপোর্ট: এভারেস্টজয়ী প্রথম বাংলাদেশি নারী-পুরুষ হিসেবে স্বীকৃতি দেয়া হয়েছে এম এ মুহিত ও নিশাত মজুমদারকে। একাত্তর টিভির এক প্রতিবেদনে এ বিষয়টি প্রথম তুলে ধরা হয়। কিন্তু এভারেস্টজয়ী প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে মুসা ইব্রাহীম নিজেকে দাবী করে হিমালয় চূড়ায় ওঠার স্বপক্ষে মুসা যে ছবি ও প্রমাণাদি দেখিয়েছিলেন কিন্তু তা নিয়ে সন্দেহ পোষণ করেন মুহিত।

তিনি বলেন, মুসা যে ছবিটি দেখিয়েছে, সেটি চূড়ার নয়। কারণ চূড়ার ছবি এমন হয় না। এটি সাত হাজার ফুট নিচে তোলা ছবি।এভারেস্টজয়ী আরেকজন থেম্বু শেরপাও এ ছবিটির সত্যতা নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। একাত্তরের প্রতিবেদনে বলা হয়, এভারেস্ট জয় নিয়ে মুসা যে স্মরণিকাটি প্রকাশ করেন, তাতে তার (মুসা) সঙ্গে আর যাদের কথা বলা হয়েছে, তাদের কারো নামই ‘নেপাল পর্বত’ এ নেই।

মুহিত একাত্তর টেলিভিশনকে বলেন, “দৈনিক প্রথম আলোতে এভারেস্ট জয় করা নিয়ে মুসা ধারাবাহিকভাবে যে গল্পটি বলেছেন, তাতে বেস ক্যাম্প ১ থেকে চূড়া পর্যন্ত অনেক কিছুরই বর্ণনা নেই।” মুসার ওয়েবসাইটে এভারেস্ট জয় করা নিয়ে তোলা ছবিটি ‘বিশ্লেষণ’ করে মুহিত দাবি করেছেন, এটি বেস ক্যাম্প -১ এ তোলা। তবে এ বিষয়ে ‍মুসা ইব্রাহিম একাত্তরকে বলেন, এটা তার বিরুদ্ধে ‘ষড়যন্ত্র’।

উল্লেখ্য নেপালের পর্যটন মন্ত্রণালয় এবং নেপাল মাউন্টেইনিয়ারিং অ্যাসোসিয়েশনের প্রকাশনা ‘নেপাল পর্বত’-এ এভারেস্টজয়ীদের তালিকায় নাম নেই বাংলাদেশের প্রথম এভারেস্টজয়ী হিসেবে পরিচিত মুসা ইব্রাহিমের। এভারেস্টজয়ী প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে মুসা ইব্রাহীম দাবি করেন। এই বিষয়টি নিয়ে আদালতে একটি মামলা চলছে।

Comments
Loading...