সদ্যজাতকে গলাটিপে ও থেঁতলে হত্যা করলো মা

0 ১৯
soddoকলকাতা: ভোরের আলো তখনও ফোটেনি। প্রতিবেশিরা শিবশঙ্কর (৪১) ও শঙ্করী পালের (৩২) বাড়ি থেকে সদ্যজাতের কান্নার আওয়াজ পেয়েছিলেন। কিন্তু পাল পরিবারের সদ্যোজাত পুত্র সন্তানের আর পৃথিবীর আলো দেখার সুযোগ হয়নি। নিরাপদআশ্রয় দেয়ার বদলে তা মা শঙ্করী পাল তাকে গলা টিপে খুন করে। এরপর শিলনোড়া দিয়ে ওই মৃত সন্তানের মাথা থেঁতলে প্রাণহীন দেহটি বস্তায় ভরে খাটের নিচে রেখে দেন।
বৃহস্পতিবার পশ্চিমবঙ্গের বারাসাতের নতুনপল্লিতে এই নৃশংস ঘটনা ঘটে।
এই ঘটনার নৃশংসতা বলতে গিয়ে এখন কেঁপে উঠছেন শঙ্করী পালের প্রতিবেশীরা। যদিও নয় মাস গর্ভে ধারণ করে প্রসব যন্ত্রণা সহ্য করে যিনি সন্তানের জন্ম দিয়েছেন সেই মা শঙ্করী পাল নির্বিকার।
জানা যায়, হাত-পায়ে লেগে থাকা সদ্যজাতের রক্ত ধুতে গিয়ে প্রতিবেশীদের নজরে পড়েন শঙ্করী। বারাসাতের নতুনপল্লির বাসিন্দারা জানিয়েছেন, রক্তমাখা গায়ে কলতলায় হাত-পা ধুতে আসেন শঙ্করী। তাকে জিজ্ঞাসা করলে সে বলে, ‘ঘরে ইঁদুর মেরে এসেছে। ইঁদুরের রক্ত গায়ে লেগে গিয়েছে।’
এরপরই প্রতিবেশিদের সন্দেহ হয়। তারা গোপনে বারাসাত থানায় খবর দেন। বারাসত থানার পুলিশ এসে খাটের তলা থেকে বস্তাবন্দী সদ্যজাতের দেহ উদ্ধার করে ও শঙ্করীকে গ্রেপ্তার করে।
স্থানীয়রা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন বাসায় পরিচারিকার কাজ করা শঙ্করীর চার সন্তান। তার স্বামী শিবশঙ্কর পেশায় ভ্যান চালক হলেও মদ্যপ। এলাকাবাসী মনে করছে, অভাবের তাড়নায় শঙ্করী এই কাজ করেছে।
Comments
Loading...