হে তরুণ! তোমরাই পেরেছ, তোমরাই পারবে!

0 ৫৮

ফয়সাল আহমেদ, জার্মানি: তরুণরাই সব সময় সমাজকে বদলে দিয়েছিল, ইতিহাস তার সাক্ষী। স্বাধীনতা যুদ্ধে তরুণরাই বেশি অংশগ্রহণ করেছিল। কিশোর, তরুণরা স্বাধীনতার জন্য জীবন দিয়েছিল। তেমনি ভাবে স্বাধীনতা পরবর্তীতে জাতির প্রয়োজনে, গণতন্ত্র পুনরুদ্ধারে, স্বৈরাচারবিরোধী আন্দোলনে, সবসময়ই শোষণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিল তরুণরা। এখনো তরুণরা বারবার প্রমাণ দিচ্ছে তারাই পারবে।

কিছুদিন আগে একজন কৃষক রাগে ক্ষোভে নিজের পাকা ধানে আগুন দিয়েছিলেন। যেখানে ধান চাষ করে কৃষক লোকসান দিচ্ছে ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে, ধান বিক্রি করে সে তার খরচ উঠাতে পারবে না। তাই সে ধানের মধ্যে আগুন দিয়েছিল। আমাদের দায়িত্বপ্রাপ্ত মন্ত্রী বলেছিলেন যে এটা পরিকল্পিত। সত্যি দুঃখজনক!! এরপর থেকে বিভিন্ন জায়গায় তরুণ শিক্ষার্থীরা কৃষকের ধান কেটে দিচ্ছে। সত্যি তারা আমাদের অনুপ্রেরণা, আমরা এখনো আশাবাদী এই তরুনরাই আমাদের সমাজকে বদলে দিবে। আমি তরুণদের স্যালুট জানাই।

কিছুদিন আগেও আমরা দেখেছি যখন ক্ষমতাসীনরা ব্যর্থ হয়েছিল রাস্তায় মানুষকে নিরাপত্তা দিতে। তখন মাঠে নেমেছিল তরুণরা, তরুণ শিক্ষার্থীরা। ঢাকা শহরের পরিবহন কে এত সুশৃংখলভাবে সাজিয়েছিল যা জাতি অবাক চোখে দেখেছিলো। অবাক লাগে, তরুণরা বারবার আমাদেরকে পথ দেখিয়েছে, যদিও যারা দায়িত্বপ্রাপ্ত তাঁরা কিন্তু তরুণদের দেখান সেই পথকে অনেক সময় অবহেলা করেছে। তরুণরা বারবার প্রমাণ দিয়েছে তারাই সমাজকের বদলে দিতে পারে, তারাই সমাজকে বদলাবে। আমি আবারও সেই তরুণদের স্যালুট জানাই এবং রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সেই বিখ্যাত কবিতার স্বরে বলতে চাই:

‘ওরে নবীন, ওরে আমার কাঁচা,
ওরে সবুজ, ওরে অবুঝ,
আধমরাদের ঘা মেরে তুই বাঁচা।’

আমি আশান্বিত, আমি আনন্দিত, আমি গৌরবান্বিত তোমাদের স্বাগতম হে তরুণ। শোষণের বিরুদ্ধে, সমাজে ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠায় তোমরাই এগিয়ে আসবে।

কৃষকরা কেন অর্থ দিয়ে, শ্রম দিয়ে, উৎপাদিত তাদের ফসলের ন্যায্য দাম পাবে না। কৃষকরা যদি ফসলের ন্যায্যমূল্য না পায়, যদি ক্ষতির সম্মুখীন হয় তাহলে তো চাষ করতে উৎসাহী হবে না। আর যদি তারা চাষ না করে তাহলে বাংলাদেশের অর্থনীতির অবস্থা কি হবে? এটাতো সরকারকে ভাবতে হবে। কিন্তু অনেক সময় দেখা যায় রাজনৈতিক প্রভাব এবং এটাই সত্যি, এবং কৃষিমন্ত্রী নিজেই বলেছেন যে, রাজনৈতিক প্রভাবের কারণে কৃষকরা সরাসরি নিজেরা চাল বিক্রি করতে পারে না আর এজন্যই তারা মূল্য পায় না। তাহলে কি দাঁড়ালো? তাহলে তিনি স্বীকার করলেন যে এটা তাদের রাজনৈতিক ব্যর্থতা!

যদি কৃষক না বাঁচে তাহলে দেশ বাঁচবে কিভাবে? বাংলাদেশ একটি কৃষি প্রধান দেশ। আমি সবাইকে অনুরোধ করবো কৃষকদের পাশে দাঁড়িয়ে তরুণরা আমাদের যে রাস্তা দেখিয়েছে আমরা যেন সবাই সাম্যের সমাজ গঠন করতে এগিয়ে আসি এবং তরুণদের সাথে কৃষকের পাশে দাঁড়াই।

Comments
Loading...