আফগানিস্তানের ১৬ প্রাদেশিক রাজধানী তালেবানের দখলে

0 ১৪

আফগানিস্তানে ২৪ ঘন্টায় পুল-ই-আলম ফেরুজ কোহ, কালা-ই নাও এবং লস্কর গাহ দখল করেছে তালেবান মিলিশিয়ারা। নতুন করে তালেবানের নিয়ন্ত্রণে এসেছে হেরাত ও কান্দাহারের শহরগুলোও। সব মিলিয়ে দেশটির ১৬টি প্রাদেশিক রাজধানীর নিয়ন্ত্রণ এখন তালেবানের হাতে। মার্কিন সেনাদের প্রত্যাহারের পর গত কয়েক মাসে ক্রমশ কাবুলের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে তালেবান। প্রথম দিকে প্রতিরোধ গড়তে পারলেও এখন তালেবানের সামনে অসহায় হয়ে পড়েছে আফগান সেনারা।
এদিকে আফগানিস্তান গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন বৃটেনের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী বেন ওয়ালেস। তিনি বলেন, পশ্চিমা দেশগুলোকে বুঝতে হবে তালেবান কোনো আলাদা স্বত্বা নয়, এখানে অন্য অনেক পক্ষের স্বার্থ রয়েছে। বৃটেন এটি ১৮৩০ সালের দিকেই বুঝতে পেরেছিল।

আফগানিস্তান এমন একটি দেশ যা বিভিন্ন যুদ্ধনেতা এবং বিভিন্ন প্রদেশ ও সম্প্রদায়ের অধীনে পরিচালিত হয়। আমার ধারণা দেশটি এখন গৃহযুদ্ধের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।
আফগানিস্তানে তালেবানের অবিশ্বাস্য সামরিক সাফল্যের দিকে আফগান সরকার তো বটেই, পুরো বিশ্বই এখন হা হয়ে তাকিয়ে আছে। গত সাত দিনে তারা ১৬টিরও বেশি প্রাদেশিক রাজধানী দখল করেছে। এতো দিন আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলে তালেবানরা তেমন কোনো সফলতা দেখাতে পারেনি। কিন্তু এবার উত্তরের শহরগুলোও দখল করে নিয়েছে সংগঠনটি। দেশটিতে আফগান নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য সংখ্যা ৩ লাখেরও বেশি। এছাড়া আছে বিমান বাহিনী। কিন্তু তারপরেও মাত্র ৬০ থেকে ৮০ হাজার সদস্যের তালেবানের সাথে তারা পারছে না। তালেবানের এই সামরিক সাফল্যে অবাক খোদ যুক্তরাষ্ট্রও। অধিকাংশ পশ্চিমা সামরিক বিশ্লেষক এখন বলছেন, নেটো বাহিনী তালেবানের কোনও ক্ষতি তো করতে পারেইনি, বরঞ্চ গত ২০ বছরের মধ্যে তালেবান এখন সবথেকে শক্তিধর।
Comments
Loading...