নর্দমায় মিলল অপরাধ সাংবাদিকের মা ও শিশুর গলাকাটা লাশ

0

ভারতে এক অপরাধ সাংবাদিকের মা ও শিশুকন্যাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়েছে। বাড়ি থেকে দুই কিলোমিটার দূরের নর্দমা থেকে তাদের লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

ভারতের নাগপুরের পবনসূত নগরে এ ঘটনা ঘটেছে। ওই সাংবাদিক হলেন রবিকান্ত কাম্বলে। তার স্ত্রী পুলিশ বাহিনীতে কর্মরত। এ ঘটনায় এক মুদি দোকানদারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ জানায়, এক বছরের নাতনি রাশিকে নিয়ে রবিকান্তের মা ঊষা সেবাক্রম কাম্বলে শনিবার বিকাল ৫টার দিকে বেড়াতে বের হন। রাত দেড়টা নাগাদ তারা বাড়ি না ফেরায় রবিকান্ত স্থানীয় থানায় বিষয়টি জানান।

পরে পুলিশ জানতে পারে, তাদের সর্বশেষ দেখা গেছিল গণেশ সাহু বলে এক ব্যক্তির মুদি দোকানের কাছে। পরে গণেশের গাড়ি ও বাড়িতে রক্তের দাগ পাওয়া যায়।

এর পর তাকে আটক করে পুলিশ। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি জানান, ঊষার কাছ থেকে সুদের বিনিময়ে সাত হাজার টাকা ধার নিয়েছিলেন। পরে সেই টাকা ফেরত দিলেও তা নিয়ে দুজনের মধ্যে ঝগড়া হয়।

ঊষা তার সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করেন। শনিবার বিকালে তাকে দেখতে পেয়ে বাড়ির ভেতরে ডাকেন গণেশ। তিনি ভেতরে গেলে গণেশ তার মাথা দুবার জোরে দেয়ালে ঠুকে দেন। এতে মাটিতে পড়ে গিয়ে ঊষা চেঁচামেচি শুরু করলে তাকে গলা কেটে হত্যা করা হয়।

গণেশ জানান, এক বছরের রাশি এ দৃশ্য দেখে ভয়ে কান্না শুরু করলে তাকেও গলা কেটে হত্যা করা হয়। এর পর স্ত্রীর সহযোগিতা নিয়ে লাশ দুটি বস্তায় ভরে রাত ১০টার দিকে নর্দমায় ফেলে আসেন।

Comments
Loading...