পশ্চিমবঙ্গের দুই মন্ত্রী ও সাবেক মেয়রকে আটক করল সিবিআই

0 ৮৪

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যে নারদ ঘুস কেলেংকারি মামলা নাটকীয় মোড় নিল। আজ সোমবার সকালে এই মামলায় কেন্দ্রীয় তদন্ত বাহিনীকে (সিবিআই) সঙ্গে নিয়ে রাজ্যের দুই মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ও সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের বাড়িতে অভিযান চালায় সিবিআই।

একইসঙ্গে অভিযান চালানো হয় তৃণমূলের বিধায়ক মদন মিত্র এবং কলকাতার সাবেক মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বাড়িতে। তাঁদের সবাইকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য কলকাতার নিজাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

এদিন সকালে কলকাতার সাবেক মেয়র এবং তৃণমূলের বিধায়ক ও মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের চেতলার বাড়ি ঘিরে ফেলে কেন্দ্রীয় বাহিনী। সকাল ৯টা নাগাদ তাঁকে বাড়ি থেকে নিয়ে যায় সিবিআই।

ফিরহাদ বলেন, ‘নারদ মামলায় আমাকে গ্রেপ্তার করেছে সিবিআই। বিনা নোটিশে আমাকে গ্রেপ্তার করা হলো। স্পিকারের অনুমতি ছাড়াই আমাকে গ্রেপ্তার করা হলো। আদালতে দেখে নেব।’

এদিন সকালেই মদন মিত্র ও শোভন চট্টোপাধ্যায়কে নিজাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়া হয়। নিজাম প্যালেসে আনা হয়েছে রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়কেও। তাঁদেরও জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলে সিবিআই সূত্রের খবর।

যদিও সিবিআই সূত্রে দাবি, গ্রেপ্তার করা হয়নি ফিরহাদকে। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাঁকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। তাঁর সঙ্গে আরও চারজনকেও আনা হয়েছে। ফিরহাদ, শোভন ও মদনের সঙ্গে নিজাম প্যালেসে আনা হয়েছে রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়কেও। সোমবার সকালে এই চারজনকে একেবারে আচমকা তুলে আনা হয়।  ধারণা করা হচ্ছে, আজ এই চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট জমা করতে পারেন সিবিআই কর্মকর্তারা।

কিছুদিন আগেই নারদ মামলায় অভিযোগপত্র গঠনের অনুমতি দিয়েছিলেন পশ্চিমবঙ্গের রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। সেই মামলার সূত্রেই সিবিআই কর্মকর্তাদের অভিযান বলে অনুমান। যদিও সিবিআই-এর পক্ষ তেকে এ বিষয়ে এখনও কিছু জানানো হয়নি।

এদিকে ফিরহাদকে বাড়ির বাইরে আনা হতেই তাঁর সমর্থকেরা স্লোগান দিতে থাকেন। তাঁদের সঙ্গে কেন্দ্রীয় বাহিনীর বচসাও হয়। পরে ফিরহাদ তাঁদের শান্ত করেন।

Comments
Loading...