খাবার সাজিয়ে ডাকতে গিয়ে মেঝেতে ছেলের লাশ পেলেন মা

0 ১৫৩

জুমার নামাজে যাওয়ার কথা ছিল রফিকুল ইসলামের। তখনো ঘরে ফিরেননি, দুপুরের খাবারের সময়ও চলে যাচ্ছে ছেলে আসছে না; তখন ছেলেকে খুঁজতে বের হন তার মা রেনুয়ারা বেগম।

ছেলের জন্য টেবিলে খাবার প্রস্তুত করে রেখে এসেছেন। খাবার জন্য ডাকাডাকি করে ঘরে এসে দেখেন- মেঝেতে পড়ে আছে ছেলের লাশ!

শুক্রবার ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার রামগোপালপুর ইউনিয়নের বলুহা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

নিজের খামারে বিদ্যুৎ সংযোগ দিতে গিয়ে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যান রফিকুল ইসলাম (২৭)। তিনি বলুহা গ্রামের মরজত আলীর পুত্র।

নিহতের মা রেনুয়ারা বেগম বলেন, শুক্রবার সকাল থেকেই ব্রয়লার মুরগির ডিম ফোটানোর যন্ত্রে বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার জন্য কাজ করছিল রফিকুল। ঘরের সিলিংয়ে উঠে বিদ্যুৎ সংযোগ দেয়ার সময় বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে ঘটনাস্থলেই সে মারা যায়। দুপুরে খাওয়ার সময় পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন।

তিনিও ছেলেকে খুঁজতে বের হন। সেখানে গিয়ে দেখেন, মেঝেতে পড়ে আছে ছেলের লাশ। দেখতে পান বিদ্যুতের তারে জড়িয়ে রয়েছে সে।

এলাকাবাসী জানান, রফিকুল ইসলাম ছিল অত্যন্ত ভদ্র। নিজের পায়ে দাঁড়াতে চেয়েছিল। ব্রয়লার মুরগির খামার দিয়ে স্বাবলম্বী হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল।

গৌরীপুর থানার ওসি খান আব্দুল হালিম জানান, এ ঘটনায় থানায় অপমৃত্যু মামলা হয়েছে।

উৎসঃ   jugantor
Comments
Loading...