প্রবাসী সাংবাদিক ও কলামিস্টদের ব্যাংক হিসাব তলবে বিএফইউজে’র প্রতিবাদ ও নিন্দা

0 ৯৪

প্রবাসী সাংবাদিক ও কলামিস্টদের ব্যাংক হিসাব বিররণী তলবের নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন (বিএফইউজে)’র নেতৃবৃন্দ। বিএফইউজে’র সভাপতি এম আবদুল্লাহ ও মহাসচিব নুরুল আমিন রোকন এক বিবৃতিতে সাহসী ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার পথ রুদ্ধ করতে এবং দেশে কর্মরত সাংবাদিকদের মধ্যে ভীতি ও আতঙ্ক ছড়াতে এ ধরনের হয়রানিমূলক পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

বিবৃতিতে নেতৃদ্বয় বলেন, সংবাদপত্রে প্রকাশিত খবরে জানা গেছে, প্রায় সোয়াশ’ মামলা মাথায় নিয়ে নির্বাসনে থাকা দৈনিক আমার দেশ সম্পাদক মাহমুদুর রহমান, নিপীড়নের শিকার হয়ে দেশছাড়া প্রবাসী সাংবাদিক কনক সরওয়ার, ইলিয়াস হোসেন, কলামিস্ট ড. তুহিন মালিক ও পিনাকি ভট্টাচার্যসহ বহুসংখ্যক সাংবাদিক, লেখক ও অনলাইন অ্যাক্টিভিস্ট এর ব্যাংক হিসাব বিবরণী চেয়ে বিভিন্ন ব্যাংকে গত ২২ নভেম্বর চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশ ফাইন্যান্সিয়াল ইন্টিলিজেন্স ইউনিট (বিএফআইইউ)।

সরকারি সংস্থা বিএফআইইউ’র কর্মকর্তাদের উদ্বৃত করে খবরে জানানো হয়েছে, সরকারি একটি সংস্থার চাহিদার অনুযায়ী তাদের হিসাব বিরবণী এমনকি ব্যক্তিগত তথ্য বিবরণীসম্বলিত কেওয়াইসি ফরমও চাওয়া হয়েছে।

বিবৃতিতে সাংবাদিক নেতারা বলেন, নিরাপত্তাহীনতার কারণে দীর্ঘদিন নির্বাসিত জীবনে থাকা সাংবাদিক, কলামিস্টদের ব্যাংক লেনদেনের তথ্যবিবরণী কোন সরকারি সংস্থা, কেন চেয়েছে তা বিএফআইইউ কর্তৃপক্ষের স্পষ্ট করা উচিৎ। দেশে ভিন্নমতের সাংবাদিকদের দলন, দমন, নিপীড়নে সরকারি সংস্থাগুলোকে এভাবে ব্যবহার করা বেআইনী ও ন্যাক্কারজনক। সাহসী ও অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার পথ রুদ্ধ করতে বর্তমান সরকার ধারাবাহিকভাবে নানা কায়দায় হয়রানি, নিপীড়ন, হামলা, মামলার পথ বেচে নিয়েছে। তারই অংশ হিসেবে প্রবাসী সাংবাদিকদের হিসাব তলব করা হয়েছে বলে বিএফইউজে মনে করে।

নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে দেশে ও প্রবাসে কর্মরত সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে সবরকম হয়রানি ও নিপীড়ন বন্ধ করার জন্য সরকারের প্রতি আহবান জানান।উৎসঃ   দেশ জনতা

Comments
Loading...