নেইমারকে শান্তনা দিয়ে কি বলেছেন মেসি

0 ১১০

খেলা শেষে মেসি যখন ট্রফি হাতে নেয়ার অপেক্ষায় উল্লাসে ব্যস্ত। তখন অঝোরে কাঁদছেন নেইমার। কোপা আমেরিকার ট্রফি জিততে না পারার কান্না। ২৮ বছরের অপেক্ষা ঘুচিয়ে এই ট্রফিটা হয়তো বিধাতা তার নামেই লিখে রেখেছিলেন।

কিন্তু প্রতিপক্ষ একজনকে তো হারতেই হবে। আর সেটাই মেনে নিতে হয়েছে ব্রাজিলের নেইমারকে। হলো না আন্তর্জাতিক ট্রফি জেতা। হতাশার গল্প দিয়েই শেষ হলো আসর। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে তাকে পড়তে হয়েছিল ভয়ংকর ইনজুরিতে। এরপর চলে যান মাঠের বাইরে। এরপর খেলা হয়নি দীর্ঘদিন।

২০১৯ সালে ব্রাজিলের কোপা জয়ের সময় ছিলেন না দলে। তবে সুযোগ ছিল চলতি আসরে। হয়তো লিখতে পারতেন একটা সফলতার গল্প। কিন্তু হলো না। তাই ম্যাচ শেষে কান্নাই সঙ্গী হলো নেইমারের।

প্রতিপক্ষের বন্ধুকে কান্নারত অবস্থায় দেখে সান্ত্বনা দিতে এগিয়ে এলেন মেসি। জড়িয়ে ধরলেন। না পাওয়ার আক্ষেপের কষ্ট তো মেসিরও দীর্ঘদিনের। হয়তো বুকে জড়িয়ে সেটাই মনে করাতে চাইলেন। হয়তো কানে কানে বললেন, এটাই শেষ নয় সুযোগ আসবে আবার।

রোববার ঐতিহাসিক মারাকানায় ব্রাজিলকে ১-০ গোলে হারিয়ে আর্জেন্টিনা শিরোপার উল্লাস করে। ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দেওয়া গোলটি করেন ডি মারিয়া। ২০০৪ সালে সিজার দেলগাদোর পর প্রথম আর্জেন্টাইন ফুটবলার হিসেবে কোপার ফাইনালে গোল করলেন ডি মারিয়া।

মারাকানায় ম্যাচটিতে বল দখলে এগিয়ে ছিল ব্রাজিল। প্রথমার্ধের ৬০ ভাগ সময় বল দখলে রেখেছেন নেইমাররা। আক্রমণেও এগিয়ে ছিল স্বাগতিকরা। পুরো ম্যাচে ১৩টি শট নিয়েছে ব্রাজিল, যার মধ্যে দুটি ছিল অনটার্গেটে যাওয়ার মতো। অন্যদিকে আর্জেন্টিনার পাঁচ শটের মধ্যে লক্ষ্যে যাওয়ার মতো ছিল দুটি। তার মধ্যেই সফল লিওনেল স্কালোনির দল।

উৎসঃ   নয়া দিগন্ত
Comments
Loading...