টাখনুর নিচে কাপড় পরা যে কারণে নিষিদ্ধ

0 ৬৮

দুনিয়ার এই মোহে পড়ে মানুষ ধর্মীয় নিয়ম-নীতি থেকে দূরে সরে যাচ্ছে। হয়ে উঠছেন ফ্যাশনপ্রেমী ও অহংকারী। নিজের সুবিধা মতো চলাফেরা করতে গিয়ে কোরআন-হাদিসের অনেক বিষয়কে তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য করছেন। এর মধ্যে এমনই একটি বিষয় টাখনুর নিচে কাপড় পরা। যা শরীয়তে কঠোরভাবে নিষিদ্ধ। কিন্তু দুঃখের বিষয় হলো বেশিরভাগ মানুষই এই কঠিন গোনাহে লিপ্ত। যার ফলে জাহান্নামের কঠিন শাস্তি ভোগ করতে হবে।

রাসুল (সা.) বলেছেন, ইজারের (লুঙ্গি) বা পরিধেয় বস্ত্রের যে অংশ পায়ের গোড়ালির নিচে থাকবে, সেই অংশ জাহান্নামে যাবে। (বুখারি, হাদিস : ৫৭৮৭)

হজরত আবু হুরায়রা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, নবী (সা.) বলেছেন, অথবা আবুল কাসেম বলেছেন, এক ব্যক্তি আকর্ষণীয় জোড়া কাপড় পরিধান করে চুল আঁচড়াতে আঁচড়াতে পথ চলছিল। হঠাৎ আল্লাহ তাকে মাটির নিচে ধসিয়ে দেন। কিয়ামত পর্যন্ত সে এভাবে ধসে যেতে থাকবে। (বুখারি, হাদিস : ৫৭৮৯)

পুরুষের পায়ের টাখনুতে থাকে টেস্টোস্টেরন নামক যৌন হরমোন, যা সঠিকভাবে কাজ করার জন্য প্রাকৃতিক আলো-বাতাসের প্রয়োজন। টাখনুকে ঢেকে রাখলে টেস্টোস্টেরন হরমোন শুকিয়ে যায়। যার প্রভাবে শরীরে অনেক রকম সমস্যা দেখা দেয়। শুক্রাণু কমে যায়। ফলে সহজে বাচ্চা হয় না। তা ছাড়া টেস্টোস্টেরনের অভাব মস্তিষ্ক ‘ঘোলাটে’ করে দেয়। এতে মনোযোগ নষ্ট হয়। স্মৃতিশক্তিও কমে আসে ধীরে ধীরে। হয়তো এ কারণেই নবীজি (সা.) টাখনুর নিচে কাপড় পরতে নিষেধ করেছেন।

ব্রেকিংনিউজ

Comments
Loading...