মানুষ ফিরে পেয়েছে ভোট ও ভাতের অধিকার: শেখ হাসিনা

0 ৩০

বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হয়েছে। দেশে ফিরে বঙ্গবন্ধুর এনে দেওয়া স্বাধীনতাকে পরিপূর্ণতা দিতে দেশ সেবায় আত্মনিয়োগ করেন শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনা ৪০ বছর ধরে সততা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে সাধারণ জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে তিনি স্বাধীনতাকে পরিপূর্ণতা দিয়েছেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যার নেতৃত্বেই বাংলার মাটিতে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ হবে।

আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঐতিহাসিক স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে শনিবার কেন্দ্রীয় ১৪ দলের ভার্চুয়াল আলোচনা সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন।

সভায় সভাপতির বক্তব্যে আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের সমন্বয়ক ও মুখপাত্র আমির হোসেন আমু বলেছেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের মধ্য দিয়ে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার হয়েছে। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে জঙ্গিবাদ দমন ও অসাম্প্রদায়িক চেতনার বাংলাদেশ গঠনে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের রাজনৈতিক দলগুলোর ঐক্য গড়ে উঠেছে।

আমির হোসেন আমু বলেন, ক্ষমতায় এসে ছিটমহল সমস্যার সমাধান, সীমানা চুক্তি, সমুদ্রসীমা জয়, দারিদ্র্য বিমোচন, বিচারহীনতার সংস্কৃতি দূর করা, বিভিন্ন মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে উন্নয়নের মহাসড়কে পৌঁছে দিয়েছেন শেখ হাসিনা। অর্থনৈতিক উন্নয়নের মাধ্যমে সাধারণ জনগণের ভাগ্য পরিবর্তনের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতাকে পরিপূর্ণতা দিয়েছেন বঙ্গবন্ধু কন্যা।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, সততা, নিষ্ঠা আর দক্ষতার সঙ্গে চার দশক ধরে আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন শেখ হাসিনা। তিনি দেশে ফিরে না এলে বঙ্গবন্ধু হত্যার এবং যুদ্ধাপরাধীদের বিচার হতো না। তিনি বলেন, শেখ হাসিনা ৪০ বছর ধরে সততা, নিষ্ঠার সঙ্গে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। আমরা আশা করি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কন্যার নেতৃত্বেই বাংলার মাটিতে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন পূরণ হবে।

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন বলেন, আমলাতান্ত্রিক জটিলতা ও দুর্নীতির কারণে সরকারের ইতিবাচক কর্মকাণ্ডের সুফল পাচ্ছে না সাধারণ জনগণ। কোভিট সংকট কমে গিয়েছিল। নিশ্চিতভাবে আমাদের দেশে সরকারের সফলতা রয়েছে। কিন্তু এর মধ্যে গত দেড় বছরে কি হয়েছে, তা আমরা সব জানি। সর্বশেষ সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে কেন্দ্র করে যে ঘটনা ঘটল তা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি আরও বলেন, আজকে আমরা অনেকেই বলছি- ‘এটাকে কেন্দ্র করে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক ষড়যন্ত্র হচ্ছে’। আমি যদি ক্ষেত্র প্রস্তুত করে দেই আমাদের বিরোধীপক্ষ তো সেই সুযোগ নেবে। এটাই স্বাভাবিক।

জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু বলেন, মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বাংলাদেশকে এগিয়ে নেয়ার পথচলাকে টেকসই করতে করোনা, দুর্নীতি ও জঙ্গিবাদের ভাইরাসকে চিরতরে দমন করতে হবে।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার দেশে ফিরে আসার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। মানুষ ফিরে পেয়েছে ভোট ও ভাতের অধিকার। দূরদর্শী ও সাহসী নেতৃত্বের কারণে শেখ হাসিনা আজ বিশ্বব্যাপী প্রশংসিত।

আওয়ামী লীগের মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক সম্পাদক মৃনাল কান্তি দাসের সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া বীরবিক্রম, জাতীয় পার্টি জেপির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারেশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভাণ্ডারি, গণ আজাদী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এসকে সিকদার, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেনসহ কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা।

উৎসঃ   যুগান্তর
Comments
Loading...