কৃষকলীগ ও যুবলীগ নেতাকে মারধরে বান্দরবানে ৮ পুলিশ সদস্য বদলি

0 ২৮

image_96914_0বান্দরবান: কৃষকলীগ ও যুবলীগ নেতাকে থানায় আটকে রেখে মারধরের ঘটনায়  বান্দরবান সদর থানার তিন এসআই, এক এএসআই ও চার কনস্টেবলকে বদলি করা হয়েছে ।

অভিযুক্ত এসআই নাসির উদ্দিনকে সদর থানা থেকে ডিবিতে, এনামুল হককে রুমা থানায়, মো. কাউসারকে থানচি থানায় ও এএসআই মৃদুল বড়ুয়া রুমা থানায় বদলি করা হয়। চার কনস্টেবলকেও থানচি ও রুমা থানায় বদলি করা হয়। বুধবার পুলিশ সুপার এই নির্দেশ জারি করেন বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

একটি সালিশকে কেন্দ্র করে গত ২৯ আগস্ট রাতে থানা ভবনের সামনে সুয়ালক ইউপির এক মেম্বারের সঙ্গে কৃষক লীগ নেতা আবুল বশর ও যুবলীগ নেতা মো. কবিরের হাতাহাতি হয়। এসময় বান্দরবান থানার এসআই এনামুল হক তাদেরকে ছাড়াতে গেলে আবুল বশর ও কবির তার ওপর হামলা চালায়। এরপরই তাদেরকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে এসে মারধর করা হয় বলে অভিযোগ ওঠে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক এস আই ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, পুলিশ মারও খাবে আবার কিছু বললে শাস্তিও পেতে হবে।

একটি সূত্র জানায় জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী এক নেতা পুলিশের উচ্চ পর্যায়ে তদবির করে আট পুলিশকে বদলি করিয়েছেন।

এ বিষয়ে সদর থানার ওসি মো. ইমতিয়াজ আটজনকে বদলির কথা স্বীকার করলেও এর বেশি কিছু জানাতে অপারগতা প্রকাশ করেছেন ।

Comments
Loading...