গোলাম আযমের জানাজা ও দাফনে সরকারের সহযোগিতা কামনা

0 ১১

image_103396_0ঢাকা: গোলাম আযমের জানাজা ও দাফনের আনুষ্ঠানিকতার ব্যাপারে  সরকারের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করে এ ব্যাপারে সরকারের সহযোগিতা কামনা করেছেন জামায়াতের নির্বাহী পরিষদ সদস্য ডা. সৈয়দ আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ তাহের।

বড় মগবাজার ১১৯/২ কাজী অফিস লেন বাসার সামনে শুক্রবার দুপুরে তিনি এ সহযোগিতা কামনা করেন।

শুক্রবার সকালে ঢাকা মেডিকেল থেকে গোলাম আযমের লাশ বাসায় আনার পর থেকে জামায়াতের শীর্ষস্থানীয় নেতারা তার মগবাজারের বাসায় দেখতে আসেন। অধ্যাপক গোলাম আযমকে এক নজর দেখতে মগবাজারের বাসায় তার সমর্থকদের উপচেপড়া ভিড় লক্ষ্য করা গেছে। সকালে তার মরদেহ বাসায় আনার পর থেকে সমর্থকদের লম্বা লাইন লেগে যায়। লাশ দেখতে আসছেন পলাতক ও আত্মগোপনে থাকা কেন্দ্রীয় ও মহানগরের নেতারাও। কর্মী সমর্থকদের চাপে ওয়্যারলেস রেইলগেট থেকে তার বাসা পর্যন্ত রাস্তায় সব যানবাহন চলাচল বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। এছাড়া ওই এলাকায় নেয়া হয়েছে কঠোর নিরপত্তা ব্যবস্থা।

জামায়াতের ভারপ্রাপ্ত আমির মকবুল আহমদ, ঢাকা মহানগর নায়েবে আমির হামিদুর রহমান আযাদ, নুরুল ইসলাম বুলবুলসহ অনেক নেতাকেই গোলাম আযমের বাসায় আসতে দেখে গেছেন। তবে নিরাপত্তার স্বার্থে তারা কেউই প্রকাশ্যে আসেননি।

আব্দুল্লাহ তাহের নতুন বার্তাকে বলেন, “আবদুল কাদের মোল্লার দাফন নিয়ে সরকার যে আচরণ করেছে আযম সাহেবের বেলায় তা আশংকা করছি। আমরা এক্ষেত্রে সরকারের ন্যাক্কারজনক আচরণ আশা করি না। সরকারের সহায়তা কামনা করি।”

তাহের বলেন,  “দেশের বাইরে থেকেও বরেণ্য স্কলার এবং বিভিন্ন দেশের ইসলামি আন্দোলনের নেতারা তার নামাজে জানাজায় অংশ নিতে আমাদের কাছে আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। আমরা সরকারের কাছে তাদের বাংলাদেশে আশার ব্যাপারে বাধা না দিতে আহ্বান জানাচ্ছি।”

তাহের জানান, গোলাম আযমের পরিবারের সদস্যরা সিদ্ধান্ত নেবেন কখন জানাজা হবে।

Comments
Loading...