বলিউড কাঁপানো সেরা ১০ বিদেশিনী

0 ১৪

28716-bollywoodforeignগত ১ দশকে বলিউডে এসেছেন বেশ কিছু বিদেশি সুন্দরী। কেউ আজ প্রথম সারির নায়িকা, কেউ বা লম্বা ইনিংস খেলছেন, কেউ বা হারিয়ে গিয়েছেন দর্শক মন থেকে। বিদেশি মডেলরা এখন এনেকেই ঝুঁকছেন বলিউডে কেরিয়ার তৈরি করতে। এই মুহূর্তে বলিউডে চুটিয়ে কাজ করছেন বেশ কিছু বিদেশি সুন্দরী। রইল বলিউডের সেরা ১০ বিদেশি সুন্দরীর তালিকা-

১০. হুমাইমা মালিক

বলিউডে বিদেশি সুন্দরীদের তালিকায় নবতম সংযোজন হুমাইমা মালিক। পাকিস্তানের মডেল অভিনেত্রী বলিউডে পা রেখেছেন ইমরান হাসমির বিপরীতে মিস্টার নটবরলাল ছবি দিয়ে। বক্সঅফিসে ছবি সাফল্য না পেলেও সৌন্দর্য ও সারল্যে হুমাইমা দর্শকদের নজর কেড়েছেন। মনে হচ্ছে বলিউডে বেশ লম্বা ইনিংসই তিনি খেলবেন।

৯. এলি আভরাম

সুইডিশ গ্রিক অভিনেত্রী বলিউডে পা রেখেছেন গত বছর মিকি ভাইরাস ছবি দিয়ে। তবে তার আগেই বিগ বসের ৭-এ অংশগ্রহণ করে এলি জনপ্রিয়তা পেয়েছিলেন। মিকি ভাইরাস হিট না হলেও সমালোচকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে ছবি। আর নজর কেড়েছে এলির নাচ, বিশেষ করে বেলি ডান্সিং। অভিনয় নিয়ে বিশেষ কিছু বলা না গেলেও আগামী দিনে আইটেম গার্লদের তালিকায় এলি উপরের দিকেই থাকবেন সেই বিষয়ে সন্দেহ নেই কোনও।

৮. মরিয়ম জাকারিয়া

ইরানিয়ান অভিনেত্রী সুইডেনের নাগরিক। ২০০৯ সালে পেয়িং গেস্ট ছবি দিয়ে বলিউডে আত্মপ্রকাশ মরিয়মের। তবে সকলের নজরে আসেন ২০১২ সালে সইফ আলি খানের বিপরীতে এজেন্ট বিনোদ ছবিতে। দিল মেরা মুফত কা গানের সঙ্গে নাচে তিনি করিনারকে বেশ কয়েক গোল দিয়েছেন। রাউডি রাঠোর ছবিতে আ রে প্রীতম পেয়ারে গানে মরিয়মের নাচ বলিউডের আইটেম গার্লদের ঘুম কেড়ে নিতে যথেষ্ট। ডি ডে-র মতো সিরিয়াস ছবি থেকে গ্র্যান্ড মস্তির মতো ১০০ কোটির ছবিও রয়েছে মরিয়মের ঝুলিতে।

৭. ব্রুনা আবাদাল্লাহ

ব্রাজিলিয়ন মডেল ব্রুনাকে বলিউড প্রথম দেখে ২০০৭ সালে আইটেম নম্বর রহেম করেতে। এরপর ২০১০ সালে আই হেট লভ স্টোরি দিয়ে অভিনয়ে আত্মপ্রকাশ ব্রুনার। দেশি বয়েজ ছবিতে অক্ষয় কুমার, জন আব্রাহামের সঙ্গে তাঁর আইটেম নম্বর শুভা না হোনে দে চিনিয়েছে সেক্সি ব্রুনাকে। গ্র্যান্ড মস্তি ছবি দিয়ে ব্রুনা জায়গা করে নিয়েছেন ১০০ কোটির নায়িকাদের তালিকায়য। আর জয় হো ছবিতে তিনি সলমনের নায়িকা। আর কী চাই? ব্রুনার দিকে তাকিয়ে বলিউড।

৬. ইভলিন শর্মা

বাবা ভারতীয় হলেও ইভলিনের মা জার্মান। বড়ও হয়েছেন জার্মানিতে। বলিউডে আসেন ২০১২ সালে ফ্রম সিডনি উইথ লভ ছবিতে। পরের বছর নটঙ্কি শালা ছবিতে দর্শকদের নজরে পড়েন। সমালোচকদেরও। ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানি, ইসাক, ইয়ারিয়াঁ, ম্যায় তেরা হিরো একের পর এক হিট ছবি। আশা করা যায় আর পিছন ফিরে তাকাতে হবে না ইভলিনকে।

৫. নার্গিস ফকরি

পাকিস্তানি বাবা ও চেক মায়ের মেয়ে নার্গিস মার্কিন নাগরিক। প্রথম ছবি রকস্টারেই নার্গিসের হিরো রনবীর কপূর। ছবিও হিট। তখন থেকেই পরিচালক, প্রযোজকদের নজরে পড়ে যান সুন্দরী, সেক্সি নার্গিস। এরপর মাদ্রাস কাফে ছবিতে নার্গিসের অভিনয় সমালোচকদের মুগ্ধ করেছে। দর্শক মনেও জায়গা করে নিয়েছেন নার্গিস। ফাটা পোস্টার নিকলা হিরো ও কিক ছবিতে নার্গিসের আইটমে নম্বরেও মজেছে দর্শক। নতুন প্রজন্মের বিদেশি অভিনেত্রীদের মধ্যে নার্গিসই বোধহয় সবথেকে প্রতিভাময়ী। বলিউডে লম্বা ইনিংস খেলার সব গুণই রয়েছে তাঁর।

৪. কল্কি কোয়েচলিন

ফরাসি বাবা ও ভারতীয় মায়ের মেয়ে কল্কি বেড়ে উঠেছেন পন্ডিচেরিতে। প্রথম ছবি দেব ডি থেকেই বলিউড আপন করে নিয়েছে কল্কিকে। শয়তান, জিন্দেগি না মিলেগি দোবারা, দ্যাট গার্ল ইন ইয়েলো বুটস, শাংহাই, এক থি ডায়ান ছবি দেখিয়েছে কল্কির অসাধারণ অভিনয় ক্ষমতা। দর্শক থেকে সমালোচক, সকলেই কল্কির অভিনয়ে মুগ্ধ। ইয়ে জওয়ানি হ্যায় দিওয়ানির মতো ১০০ কোটির ছবিতেও অভিনয় করেছেন কল্কি। তাঁর সারল্যমাখা সৌন্দর্য ও প্রতিভার কারণেই বোধহয় অন্যরকম চরিত্রের জন্য পরিচালকদের প্রথম পছন্দ কল্কি।

৩. জ্যাকলিন ফার্নান্ডেজ

শ্রীলঙ্কার সুন্দরী জ্যাকলিনের আত্মপ্রকাশ ২০০৯ সালে আলাদিন ছবিতে। প্রথম নজরে আসেন হাউজফুল ছবিতে আপকা কেয়া হোগা আইটেম নম্বরে। এরপর মার্ডার, হাউজফুল টু, রেস টু ক্রমাগত হিট ছবি দিয়ে জ্যাকলিন হয়ে ওঠেন ১০০ কোটির শিবেরের অন্যতম নায়িকা। রামাইয়া ভস্তাভইয়া ছবিতে জ্যাকলিনের আইটেম নম্বর জাদু কি ঝপ্পি দেখেই সলমন খান ঠিক করে ফেলেছিলে আগামী কিক ছবিতে জ্যাকলিনকেই চাই তাঁর। বাকিটা ইতিহাস।

২. সানি লিওন

ইন্দো-কানাডিয়ান পর্নস্টারকে বলিউডে লঞ্চ করে ভট ক্যাম্প। জিসম টু ছবিতে বলিউডে এসেই সানি বুঝিয়ে দিয়েছিলেন প্রথম সারিতেই থাকবেন তিনি। শুটআউট অ্যাট ওয়াডালা ছবিতে তাঁর আইটেম নম্বর লায়লার পর সানির লাস্যে মাতোয়ারা গোটা দেশ। রাগিনি এমএমএএস টু-র গান বেবি ডল এখনও তালিকায় উপরের দিকে। সম্প্রতি হেট স্টোরি টুতে সানির পিঙ্ক লিপসও ইউটিউবে ভাইরাল।

১. ক্যাটরিনা কাইফ

তবে এই তালিকায় এক নম্বর আসনের দাবিদার একজনই। কাশ্মিরি বাবা ও ব্রিটিশ মায়ের মেয়ে ক্যাটরিনার বলিউডে আত্মপ্রকাশ সলমন খানের প্রেমিকা হিসেবে। এক দশক আগে যখন বলিউডে আসেন তখন ভাল করে হিন্দি ভাষাটাই জানতেন না ক্যাট। তারপর থেকে তিন খান, অক্ষয় কুমার, রনবীর কপূর, হৃতিক রোশন প্রথম সারির সব নায়কদের সঙ্গেই হিট ছবির বন্যা বইয়ে দিয়েছেন ক্যাটরিনা। বলিউডের ১০০ কোটি শিবিরের অন্যতম লক্ষ্মী ক্যাটরিনা। চিকনি চামেলি থেকে কামলি, তাঁর শরীরী বিভঙ্গে, নাচের তালেই এখন নাচে সারা দেশ।

Comments
Loading...