বিসিবি কনসার্ট নিয়ে ফেসবুকে এলআরবি এবং মাইলসের তুমুল কাদা ছোঁড়াছুড়ি যুদ্ধ

0

LRBMILSঢাকা: ‘বিসিবি সেলিব্রেশন কনসার্ট’ এ অংশ নিতে পারেনি জনপ্রিয় রক ব্যান্ড মাইলস। যার জন্যে আরেক রক লিজেন্ড এলআরবি-র আইয়ুব বাচ্চুকে দায়ী করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্টেটাস দেয় মাইলসের হামিন আহমেদ। এ নিয়ে গত রাত থেকে ফেসবুক জুড়ে তুমুল বিতর্ক চলছে।

বাংলাদেশে ‘আইসিসি টি-২০ বিশ্বকাপ ক্রিকেট’ এর আয়োজন উপলক্ষে বৃহস্পতিবার রাতে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ‘বিসিবি সেলিব্রেশন কনসার্ট’ শিরোনামে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। এই অনুষ্ঠানে এ আর রহমান ও অ্যাকনের পাশাপাশি সোলস, অর্ণব অ্যান্ড ফ্রেন্ডস, এলআরবি এবং মাইলস এই চারটি দেশীয় ব্যান্ডের অংশ নেয়ার কথা ছিল।
কিন্তু রক ঘরানার ব্যান্ড ‘মাইলস’ স্টেডিয়ামে পৌঁছালেও কনসার্টে অংশ না নিয়েই চলে যায়। পরে এ বিষয়ে মাইলসের ভোকাল ও সাবেক ঘরোয়া ক্রিকেটার হামিন আহমেদ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দাবি করেন, প্রস্তুতি নিয়ে অনুষ্ঠানস্থলে উপস্থিত হওয়ার পরও তাদের পারফর্ম করতে দেয়া হয়নি। এ জন্যে কনসার্ট আয়োজনের দায়িত্বে থাকা ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান ও আইয়ুব বাচ্চুকে দায়ী করেন তিনি।
অন্যদিকে আইয়ুব বাচ্চুর নেতৃত্রে এলআরবি যখন মঞ্চে গান গাইতে ওঠে, তখন দর্শক শ্রোতারা এলআরবিকে কোন ধরণের সহযোগিতা করেনি- আইয়ুব বাচ্চুর গানের সঙ্গে কণ্ঠ মেলায়নি। অনেকেই তখন পাশের জনের সঙ্গে কথা বলছিলেন, কেউ ছবি তোলায় ব্যস্ত ছিলেন, আবার কেউবা অস্থির হয়ে এ আর রহমান কিংবা অ্যাকনের জন্যে অপেক্ষা করছিলেন।
ফলে শ্রোতাহীন আইয়ুব বাচ্চুকে একরকম বিব্রত হয়েই ৬টি গান গাইতে হয়। তারপর অনেকটা অভিমানের সুরেই তিনি বলেন, ‘আপনারা যারা কষ্ট করে বাংলা গান শুনছেন তাদের অনেক ধন্যবাদ। আপনাদের হাত না চলুক, চোখ আর কান তো খোলা আছে। এতেই চলবে, হাততালি এখন খরচ করে লাভ নেই, এটা পরের জন্য রেখে দিন, চোখ কান খোলা আছে এটাই যথেষ্ট। আপনারা ধৈর্য ধরে বাংলা গান শুনছেন, তার জন্য অনেক ধন্যবাদ।’
অনুষ্ঠানে প্রতিটি ব্যান্ডের জন্যে ২০ মিনিট করে সময় বরাদ্দ ছিল। কিন্তু আইয়ুব বাচ্চু সেখানে প্রায় ৩৮ মিনিটে ৬টি গান পরিবেশন করেন। আইয়ুব বাচ্চুর মতো সোলস, অর্ণব অ্যান্ড ফ্রেন্ডসের সদস্যরা যখন গান গাইতে মঞ্চে আসেন তখনও দর্শকরা তাদের সহযোগিতা করেনি।
ঘটনাটি এখানেই শেষ হতে পারতো। কিন্তু পারফর্ম করতে না পারার কারণ হিসাবে হামিন আহমেদ আইয়ুব বাচ্চুকে ‘মীরজাফর’ উল্লেখ করে ফেসবুকে লেখেন, ‘বঙ্গবন্ধু স্টেডিয়ামে টি২০ বিশ্বকাপের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে মাইলসকে পারফর্ম করতে দেয়া হয়নি, যদিও মাইলস উপস্থিত ছিল ও পুরোপুরি তৈরি ছিল বাংলাদেশের মিউজিক ইন্ডাস্ট্রির সর্বকালের ‘মীরজাফর’ আইয়ুব বাচ্চু ও তার ব্যান্ড এল আর বি’র ভয়ানক ষড়যন্ত্র উপেক্ষা করে; যারা কিনা ২০ মিনিটের জায়গায় ৪০ মিনিট পারফর্ম করেছে! ধিক্কার জানাই ইভেন্টের আয়োজক গ্রে ও আইয়ুব বাচ্চুর প্রতি।’
হামিন আহমেদের স্টেটাসকে কেন্দ্র করে সামাজিক মাধ্যগুলোতে শুরু হয় নতুন বিতর্ক। এ বির্তককে আরো উস্কে দেয় এলআরবি’র পাল্টা জবাব।
আইয়ুব বাচ্চু ফেসবুক লিখেন, ‘বাংলাদেশের আরেকটি প্রখ্যাত ব্যান্ড সঠিক সময়ে উপস্থিত না হওয়ায় তারা পারফর্ম করতে পারেনি। আমাদের পারফর্ম করার কথা ছিলো সবার শেষে। কিন্তু যখনই আমরা স্টেডিয়ামে ঢুকলাম আয়োজকরা আমাদেরকে স্টেজে উঠতে জোরাজুরি শুরু করেন। আমরা তাদেরকে বললাম, আমাদের তো এখন পারফর্ম করার কথা নয়! আমাদের সময় ছিল সাড়ে পাঁচটা-ছয়টা পর্যন্ত। কিন্তু তারা বললেন আমাদেরকে তখনই শুরু করতে হবে। এরপর আমাদের গান গাইবার কথা ছিল ৪ টা, তারা আমাদেরকে আরো ২ টা গান গাইতে বললেন, আমরা তা করলামও!’
তিনি আরো লিখেন, ‘কেন আমাদের দেশের সিনিয়র ব্যান্ড সঙ্গীত শিল্পীদের একজন ফেসবুকে আমাদের বিরুদ্ধে এরকম বাজে মন্তব্য করলেন? আমাদের বলতেও কষ্ট হচ্ছে যে, আমরা একই জগতের! কিন্তু আয়োজকদের জিজ্ঞাসা না করে তারা কীভাবে আমাদেরকে দোষ দিতে পারেন?’
ফলে শুরু হয় কাদা ছোড়াছুড়ি। এক পর্যায়ে হামিন আহমেদ তার ভক্তের বিভিন্ন স্ট্যাটাস গভীর রাত পর্যন্ত শেয়ার দিতে থাকেন। যেগুলোতে এলআরবি সর্ম্পকে নেতিবাচক কথাবার্তায় ভরপুর ছিল।
Comments
Loading...