‘মোদীকে লেখা হাসিনার চিঠি হাস্যকর’

0 ১৬

20120407-alamgir-460_6841ঢাকা: ভারতের হবু প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে অভিনন্দন জানিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চিঠির কথাগুলো ‘হাস্যকর’ বলে অভিহিত করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

নরেন্দ্র মোদীর সঙ্গে নিজেকে তুলনা করে প্রধানমন্ত্রী শুধু নিজেকে নয়, বাংলাদেশকেও ছোট করেছেন বলে মন্তব্য করেন এ বিএনপি নেতা। কারণ হিসেবে তিনি বলেন, মোদী জনগণের ভোটে ক্ষমতায় এলেও শেখ হাসিনা আসেন নি।

সোমবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এক প্রতিবাদ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

‘সারা বাংলাদেশে গুম, হত্যা, নির্যাতন, মিথ্যা মামলা দায়ের ও ডেমরা থানা যুবদল সভাপতি রফিকুল ইসলাম রফিকসহ সব যুবদল নেতা-কর্মীদের মিথ্যা মামলায় গ্রেফতারের প্রতিবাদ’ জানাতে এ সভার আয়োজন করে যুবদলের ঢাকা মহানগর (দক্ষিণ) শাখা।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্যে করে ফখরুল বলেন, আপনি লিখেছেন, বিশাল ম্যান্ডেট নিয়ে আসা আপনার সরকারের সঙ্গে বিশাল ম্যান্ডেট পাওয়া আমার সরকার একসঙ্গে কাজ করতে চায়। কিন্তু এ কথায় আপনি শুধু নিজেকে নয়, দেশকেও ছোট করেছেন।

কারণ উল্লেখ করে তিনি বলেন, মোদী জনগণের ম্যান্ডেট নিয়ে ক্ষমতায় এলেও আপনি জনগণের ভোটে ক্ষমতায় আসেন নি। তাই কথাটি খুবই হাস্যকর। দলের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, এ সরকারকে নির্বাচনে বাধ্য করতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের দুর্ভাগ্য, গণতন্ত্র হত্যা করে তারা গণতন্ত্রের কথা বলে। তারা এখন সামরিক স্বৈরতন্ত্রের চেয়েও খারাপ অবস্থায় চলে গেছে।

অপহরণের বেশিরভাগ ঘটনায় ৠাবের সংশ্লিষ্টতার প্রমাণ পাওয়া গেছে উল্লেখ করে ফখরুল বলেন, আওয়ামী লীগের অনেক নেতাই বলছেন, ‘র‌্যাব অনেক ভালো কাজ করছে, বিলুপ্ত করার প্রয়োজন নেই।’ র‌্যাব একসময় ভালো কাজ করেছে। কিন্তু এখন করছে না। তাই র‌্যাবের প্রয়োজন আছে বলে এখন আর বিএনপি মনে করে না।

তিনি বলেন, নারায়ণগঞ্জের সাত খুনের ঘটনার অনেক আগে থেকেই আমরা অপহরণ, গুমের প্রতিবাদ করে আসছিলাম। কিন্তু দুর্ভাগ্যজনকভাবে এর কোনো প্রতিকার দেখতে পাইনি।

ইলিয়াস আলী, চৌধুরী আলম গুমের ঘটনা তুলে ধরে তিনি আবারও র‌্যাব ও সরকারকে এর জন্য দায়ী করেন।

ফখরুর বলেন, নারায়ণগঞ্জে হত্যাকাণ্ড র‌্যাব ঘটিয়েছে ও তা অর্থের বিনিময়ে। কুমিল্লায়ও র‌্যাবের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। ডিএমপি’র সাইটে দেওয়া হয়েছে, অর্থ-আত্মসাতের অভিযোগে র‌্যাবের সদস্যদের সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। এগুলো শুধু সেই সংবাদ, যেগুলো আমরা পাচ্ছি, প্রকাশিত হচ্ছে।

তিনি বলেন, অপহরণের ঘটনাগুলোর বেশিরভাগই র‌্যাবের বিরুদ্ধে এসেছে। মানুষ উৎকণ্ঠা ও উদ্বেগের সঙ্গে দেখছে, র‌্যাব এখন মানুষের জীবন রক্ষার পরিবর্তে জীবন হরণের কাজে ব্যবহার হচ্ছে। জঙ্গি দমনে ব্যবহার করার কথা র‌্যাব। কিন্তু বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বিরোধীদল দমনে র‌্যাবকে ব্যবহার করা হচ্ছে।

ফখরুল আরও বলেন, অত্যন্ত যুক্তিসঙ্গতভাবেই সুশীলরা ও খালেদা জিয়া বলেছেন, যে র‌্যাব মানুষের অধিকার ও প্রাণ হরণ করে, সে র‌্যাবের প্রয়োজন নেই।

আয়োজক সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মাসুদ আহমেদ মিলনের সভাপতিত্বে এতে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব বরকতুল্লাহ বুলু, যুবদল সভাপতি সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, যুবদলের সিনিয়র সহ- সভাপতি অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল বারী বাবু, ছাত্রদলের সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রশিদ হাবিব প্রমুখ।

Comments
Loading...