রাজশাহীতে ফের শিবির-পুলিশ সংঘর্ষে আহত ৩

0 ১৮

image_66450রাজশাহী: মঙ্গলবার সন্ধ্যায় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন বিনোদপুরের মণ্ডলের মোড় এলাকায় আবার ছাত্রশিবির কর্মীদের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষের ঘটনায় পুলিশের রাবার বুলেটে আহত হয়েছে দুই শিশুসহ তিনজন আহত হয়েছেন।

আহতদের রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এর আগে মঙ্গলবার সকালে ওই এলাকায় শিবির-পুলিশ সংঘর্ষের ঘটনায় এক ওসি ও তিন কনস্টেবলসহ অন্তত ৩০ জন আহত হন।

আহতরা- মহানগরীর রায়পাড়া এলাকার বেলাল উদ্দিনের ছেলে রাতুল ইসলাম (১৩), ধরমপুর এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে রবিন (১৪) ও মীর্জাপুর এলাকার আনোয়ার হোসেনের ছেলে ইফতেখারুল ইসলাম সুজন (২৫)।

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, মঙ্গলবার সকালে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন রাজশাহী-ঢাকা মহাসড়কে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রশিবির কর্মীদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এসময় মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল মজিদসহ ৩ পুলিশ সদস্য আহত হন। শিবিরকর্মীরা এ সময় ওসির ওয়াকিটকি ও তিনটি শর্টগান ছিনিয়ে নেন।

পুলিশের ওয়াকিটকি ও শর্টগান উদ্ধারের জন্য সন্ধ্যায় বিনোদপুর এলাকার আমজাদের মোড় ও মণ্ডলের মোড়ে অভিযান শুরু করে। এসময় ছাত্রশিবির কর্মীরা সংঘটিত হয়ে ফের পুলিশের ওপর হামলা চালান। শিবিরকর্মীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন এবং ডজনখানেক হাতবোমা ও ককটেলের বিস্ফোরণ ঘটান।

একপর্যায়ে পুলিশ শিবির কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে শতাধিক রাউন্ড রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল ছোড়ে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, এ সময় পুলিশের ছোড়া রাবার বুলেটে আহত হয় কিশোর রাতুল, রবিন ও সুজন। তাদের দ্রুত রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন স্থানীয়রা।

এ ব্যাপারে মতিহার থানার উপরিদর্শক (এসআই) মনিরুল ইসলাম জানান, পুলিশ শিবির কর্মীদের ছত্রভঙ্গ করতে রাবার বুলেট ব্যবহার করেছে।

Comments
Loading...