সালে বাংলাদেশের আলোচিত নারী

0 ১১
alocitoঢাকা: ২০১৩ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়া তো আলোচনায় ছিলেনই, ছিলেন আরো কয়েকজন৷ ইতিহাসের পাতায় নাম লিখিয়েছেন দুই নারী৷
শেখ হাসিনা
রাজনীতির ময়দানে প্রধানমন্ত্রী বরাবরই আলোচনায় ছিলেন৷ সেইসঙ্গে পেয়েছেন জাতিসংঘের সাউথ-সাউথ পুরস্কার৷ সর্বদলীয় সরকার গঠনসহ নানা কারণে এখনো আলোচনায় তিনি৷
খালেদা জিয়া
সরকার পতনের আন্দোলন, জামায়াত নেতাদের মুক্তি দাবি, হেফাজতকে সমর্থন – এসব কারণে বিরোধী দলীয় নেতা বেগম খালেদা জিয়াও ছিলেন আলোচনার তুঙ্গে৷
শিরীন শারমিন চৌধুরী
এ বছরের এপ্রিলে জাতীয় সংসদের স্পিকার হিসেবে নির্বাচিত হন ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী৷ তিনি বাংলাদেশের ইতিহাসে প্রথম নারী স্পিকার৷ এছাড়া প্রথমবার এবং সংরক্ষিত কোটায় সংসদ সদস্য হয়ে স্পিকার নির্বাচিত হওয়ার ঘটনাও তারই ক্ষেত্রে প্রথম৷
নাজমুন আরা সুলতানা
ফেব্রুয়ারিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগের বিচারপতি হিসেবে যোগ দেন নাজমুন আরা সুলতানা৷ তিনি ইতিহাসে দেশের সর্বোচ্চ আদালতে নিয়োগ পাওয়া প্রথম নারী বিচারপতি৷ ২০০০ সালে হাইকোর্ট বিভাগের অতিরিক্ত বিচারপতি হিসেবে নিয়োগ পাওয়ায় তিনিই ছিলেন দেশের উচ্চ আদালতে প্রথম নারী বিচারপতি৷
ওয়াসফিয়া নাজরীন
এভারেস্ট জয়ী দ্বিতীয় বাংলাদেশী নারী ওয়াসফিয়া নাজরীন এ বছর মার্চে ইউরোপের সর্বোচ্চ চূড়া মাউন্ট এলব্রুস জয় করেন৷ সেখানে গিয়ে বাংলাদেশের পতাকা উত্তোলন করেন তিনি৷ ২০১১ সালে স্বাধীনতার ৪০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে পৃথিবীর সাতটি মহাদেশের সর্বোচ্চ ৭টি শৃঙ্গ জয় করার ঘোষণা দেন ওয়াসফিয়া৷ এরই মধ্যে চারটি শৃঙ্গ জয় করেছেন তিনি৷
রেশমা
বাংলাদেশে এ বছরের সবচেয়ে আলোচিত ঘটনা রানা প্লাজার ভবন ধস৷ এ ঘটনায় আলোচিত নারী রেশমা৷ রানা প্লাজার ধ্বংসস্তূপ থেকে যাকে ১৭ দিনের মাথায় জীবিত উদ্ধার করা হয়৷ বিশ্ব গণমাধ্যমে বিষয়টি ব্যাপক আলোড়ন তুলে৷ তবে তাকে উদ্ধারের ঘটনা ‘নাটক’ বলেও উল্লেখ করেছিল অনেক দেশী-বিদেশী গণমাধ্যম৷
নাদিয়া শারমিন
এ বছরের এপ্রিলে হেফাজত ইসলামের একটি সমাবেশে দলটির কর্মীদের হাতে নাজেহাল হন একুশে টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার নাদিয়া শারমিন৷ এ হামলার প্রতিবাদে কেবল সাংবাদিকরাই নন, পুরো দেশের নারী অধিকার কর্মীরা ব্যাপক বিক্ষোভ করেন৷
লাকি আক্তার
গণজাগরণ মঞ্চের অগ্নিকন্যা লাকি আক্তার শাহবাগ আন্দোলনের সময় ব্যাপক পরিচিত পান৷ তার স্লোগান ব্যাপক জনপ্রিয়তা পায় এবং গণজাগরণের কর্মীদের উদ্দীপিত করেছিল সব সময়৷ তার স্লোগানে গর্জে উঠেছিল শিশু-কিশোর, আবাল-বৃদ্ধ-বণিতা৷
নাজমা আক্তার
বার্লিনে এ বছরের বর্ষসেরা নারী নেত্রীর পুরস্কার পেয়েছেন বাংলাদেশের নাজমা আক্তার৷ তৈরি পোশাক শিল্পের কর্মী হিসেবে কর্মজীবন শুরু করা এই নারী এ বছরের অক্টোবরে ‘আস্ত্রাইয়া ফিমেল লিডার অফ দ্য ইয়ার অ্যাওয়ার্ড ২০১৩’ ট্রফি গ্রহণ করেন৷
মাহফুজা আক্তার
বাংলাদেশের তথ্যকল্যাণী মাহফুজা আক্তার এ বছর ডয়চে ভেলে আয়োজিত ‘গ্লোবাল মিডিয়া ফোরাম অ্যাওয়ার্ড’ পান৷ উচ্চমাধ্যমিক পাস করা মাহফুজা তথ্যকল্যাণী হিসেবে কাজ করছেন ২০১০ সাল থেকে৷ গাইবান্ধা জেলার সাঘাটা উপজেলার ভরতখালী ইউনিয়নে অবস্থিত তাঁর নিজের গ্রামসহ আশেপাশের মোট পাঁচটি গ্রামে কাজ করেন তিনি৷ সূত্র: ডিডাব্লিউ
Comments
Loading...