৮ পরিবারের আর্তনাদ : নিখোঁজদের উদ্ধারের দায়িত্ব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর : সুলতানা কামাল

0 ৩৪

sultanaনিখোঁজ বা গুম হয়ে যাওয়া ব্যক্তিদের সন্ধান দিতে সরকার ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন আইন ও সালিশ কেন্দ্রের নির্বাহী পরিচালক ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা সুলতানা কামাল। তিনি বলেন, যে রাষ্ট্রে গণতন্ত্র আছে বলে দাবি করা হয়, সেখানে একজন নাগরিক নিখোঁজ হয়ে যাবে তা কিছুতেই মেনে নেয়া যায় না। এটা গণতান্ত্রিক দেশের আচরণ হতে পারে না।
গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে সুলতানা কামাল এসব কথা বলেন। নিখোঁজ ৮ ব্যক্তির পরিবার এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।
সংবাদ সম্মেলনে নিখোঁজ ব্যক্তিদের অবিলম্বে ফিরিয়ে দেয়ার দাবি জানান তাদের পরিবারের সদস্যরা। পরে এক মানববন্ধনেও অনুরূপ দাবি তুলে ধরেন তারা। নিখোঁজ ব্যক্তিদের পরিবারের অভিযোগ, র্যাব পরিচয়ে তাদের তুলে নেয়া হলেও র্যাবের পক্ষ থেকে তা অস্বীকার করা হয়েছে। কিন্তু বারবার র্যাব ও বিভিন্ন থানায় যোগাযোগ করেও নিখোঁজ ব্যক্তিদের এখনো কোনো সন্ধান মেলেনি।
সুলতানা কামাল বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কোনো দলের নয়, কোনো পক্ষেরও নয়। দলমত-নির্বিশেষে যারাই নিখোঁজ হন না কেন, তাদের খুঁজে দেয়ার দায়িত্ব আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর। তিনি বলেন, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী যদি তাদের দায়িত্ব পালনে ব্যর্থ হয়, তাহলে এ জন্য তাদের জবাবদিহি করতে হবে। তিনি আরও বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী দায়িত্ব পালন না করে পার পেয়ে যায় বলে দায়িত্বের প্রতি তারা শ্রদ্ধাশীলও হয় না।
সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত আইনজীবী শাহদীন মালিক বলেন, সংবিধান ও আইনে বলা আছে, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী যদি কাউকে গ্রেফতার করে, তবে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে আদালতে সোপর্দ করতে হবে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতি আমার অনুরোধ, তারা যেন আইনের প্রতি ন্যূনতম শ্রদ্ধা রাখে এবং তা পালন করে।
সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যদি আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে কেউ কাউকে তুলে নিয়ে যায়, তাহলে তাদের খুঁজে বের করা এবং কারা তুলে নিয়ে গেল, তাদেরও আইনের মুখোমুখি করাও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীরই দায়িত্ব।
এ সময় গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ড. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, এ ধরনের নিখোঁজ হওয়ার ঘটনাগুলো প্রতিহত করতে জনগণকেও প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। বিচারপতিদের এ ক্ষেত্রে সাহসী ভূমিকা পালন করতে হবে।
সংবাদ সম্মেলনে ২০১৩ সালের ৪ ডিসেম্বরের পর থেকে বিভিন্ন সময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর পরিচয়ে তুলে নিয়ে যাওয়া নিখোঁজ আটজনের সন্ধান দাবি করেন তাদের স্বজনরা। নিখোঁজরা হলেন ঢাকা মহানগরের ৮ নং ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম সুমন, সুমনের খালাতো ভাই জাহিদুল ইসলাম তানভীর, পূর্ব নাখালপাড়ার আব্দুল কাদের ভূঁইয়া মাসুম, পশ্চিম নাখালপাড়ার মাজহারুল ইসলাম রাসেল, মুগদাপাড়ার আসাদুজ্জামান রানা, উত্তর বাড্ডার আল-আমীন এবং শাহীনবাগের এএম আদনান চৌধুরী ও কাওসার।

Comments
Loading...