গোলকিপার যখন ‘চীনের মহাপ্রাচীর’

0 ২০

oc-2ঢাকা: একটুও দ্বিধায় নেই তারা। কোনোই সন্দেহ নেই তাদের। ইংলিশম্যান রিও ফার্ডিনান্ড, ফরাসি ফুটবলার থিয়েরি অঁরি কিংবা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ধারাভাষ্যকার ফিডেল ব্রাডলির মতে ব্রাজিল-মেক্সিকো ম্যাচের সেরা খেলোয়াড় ফ্রান্সিসকো গুলিরমো ওচোয়া।

শুধু বিশিষ্ট ওই ত্রয়ী কেন? বুধবার বিশ্বকাপের ‘এ’ গ্রুপে ব্রাজিল-মেক্সিকো ম্যাচ যারা দেখেছেন তারা সবাই একবাক্যে স্বীকার করবেন মেক্সিকান গোলকিপার ওচোয়ার অবিশ্বাস্য কৃতিত্বগাথা। যিনি এদিন নেইমার-ফ্রেড-থিয়াগো সিলভাদের সামনে চীনের মহাপ্রাচীর হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন! তা না হলে তো ব্রাজিল নিশ্চিত জয় নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারত? কী বলেন আপনারা?

ফোর্তালেজায় এদিন সবচেয়ে নজর কেড়েছে ওচোয়া’ই। কী অবিশ্বাস্য রিফ্লেক্স, দারুণ পজিশনিং সেন্স ও নিখুঁত পাঞ্চিং। সব মিলিয়ে ভবিষ্যতে পরিপূর্ণ একজন গোলকিপার হয়ে ওঠার প্রত্যয় ২৮ বছর বয়সী মেক্সিকান গোলকিপার ফ্রান্সিকো গুলিরমো ওচোয়ার। অথচ দুঃখের বিষয় হলো এই ওচোয়া এখন ‘আশ্রয়’ খুঁজছেন।কী অবাক হলেন? হ্যাঁ, নতুন আশ্রয়’ই খুঁজছেন ওচোয়া।

কারণ ক্লাব পর্যায়ে ফরাসি লিগে তিনি যে দলে খেলেন তা রেলিগেটেট (অবনমন) হয়ে দ্বিতীয় বিভাগে নেমে গেছে। সুতরাং নিজের ক্যারিয়ারকে বাঁচাতে নতুন করে দল খোঁজা ছাড়া আর কোনো উপায় আছে? ক্যারিয়ারকে তো আর বিসর্জন দেয় যায় না। সুতরাং গোলকিপার লাগলে ওচোয়ার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। নিশ্চিত থাকুন হতাশ হতে হবে না আপনাকে।

প্রসঙ্গত, মঙ্গলবার ব্রাজিল ম্যাচে নেইমার, পলিনহো, থিয়াগো সিলভা ও অস্কারদের কয়েকটি ধারালো আক্রমণ বীর বিক্রমে ঠেকিয়ে দেন মেক্সিকান গোলকিপার ওচোয়া। যাতে করে স্বাগতিক ব্রাজিলকে নকআউট পর্বের টিকিট পেতে ক্যামেরুনের বিপক্ষে শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হচ্ছে। তাই কানাডার হাফিংটন পোস্ট লিখেছে, ‘সম্ভবত ওচোয়া এই বিশ্বকাপের সেরা সেভের মাধ্যমে ব্রাজিলের জয় চুরি করেছে।’ ইংল্যান্ডের ডেইলি মেইলও এই বক্তব্যের সঙ্গে একমত।

Comments
Loading...