পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতিতে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বাংলাদেশ

0 ১৭

Aljaপাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতিতে পরোক্ষভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে বাংলাদেশ। মধ্যপ্রাচ্যে রয়েছে পাকিস্তানের শক্তিশালী সম্পর্ক। ফলে তাদের সঙ্গে সম্পর্কের অবনতি হলে তাতে মধ্যপ্রাচ্যে বাংলাদেশের মানবসম্পদের বাজার ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে। ২০১২-১৩ অর্থবছরে মধ্যপ্রাচ্য থেকে বাংলাদেশ মোট অর্জন করেছে ১৪৫০ কোটি ডলার, যা মোট রেমিট্যান্সের শতকরা ৬৩ ভাগ। গতকাল অনলাইন আল জাজিরা এ খবর দিয়েছে। এতে বলা হয়, জামায়াত নেতা আবদুল কাদের মোল্লাকে ফাঁসি দেয়ার ঘটনায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে টান টান উত্তেজনা বিরাজ করছে। পাকিস্তানের পার্লামেন্টে এ বিষয়ে প্রস্তাব পাসের পর বাংলাদেশ সরকার তার কড়া জবাব দেয়। এরপর থেকেই দু’দেশের যেসব কূটনৈতিক মিশন রয়েছে দেশের বাইরে তা রয়েছে হুমকির মুখে। ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, বৃহস্পতিবার গণজাগরণ মঞ্চের ঢাকায় পাকিস্তান দূতাবাস ঘেরাও কর্মসূচি ছিল। পুলিশ তা থামিয়ে দিতে সক্ষম হয়েছে। ওদিকে তেহরিকে তালেবান পাকিস্তান (টিটিপি) ইসলামাবাদে অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশনে হামলা চালানোর হুমকি দিয়েছে। ফলে ঘটনা ক্রমেই জটিল হয়ে উঠছে। পররাষ্ট্র বিষয়ক বিশ্লেষকরা বলেন, ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ ওআইসি’র সদস্য হয়। তখন থেকে এ পর্যন্ত বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে সম্পর্কে এতটা টান পড়েনি। আল জাজিরা আরও লিখেছে, ইসলামাবাদে অবস্থিত বাংলাদেশ হাইকমিশনের নিরাপত্তা বাড়ানো হয়েছে। কারণ কাদের মোল্লার ফাঁসির প্রতিশোধ নিতে সেখানে হামলার হুমকি দিয়েছে টিটিপি। এ জন্য পাকিস্তানে বাংলাদেশের কূটনৈতিক মিশনগুলোতে নিরাপত্তা কয়েক গুণ বাড়ানো হয়েছে। এ বিষয়ে বাংলাদেশের পররাষ্ট্র বিষয়ক মুখপাত্র মো. শামীম আহসান বলেছেন, পাকিস্তানি কর্তৃপক্ষ আমাদের নিশ্চিত করেছে, সেখানে আমাদের মিশনগুলো ও কর্মকর্তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ওদিকে বাংলাদেশে গুলশানে অবস্থিত পাকিস্তান হাইকমিশন ঘেরাও কর্মসূচির পর গণজাগরণ মঞ্চ সরকারকে পাকিস্তানের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করার জন্য ২০ ঘণ্টার আলটিমেটাম বেঁধে দেয়। এ সময়সীমা শেষ হয়ে যাওয়ার পর বৃহস্পতিবার তারা গুলশানে কূটনৈতিক এলাকার দিকে যাত্রা করে। পথে পুলিশ তাদের থামিয়ে দেয়। এ সময় পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে লাঠিচার্জ করে। আহত হন ৬০-৭০ জন বিক্ষোভকারী। এসব ঘটনায় বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যে ১৯৭৪ সালের পর এত টান টান উত্তেজনা আর দেখা যায়নি। এ বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিষয়ক প্রফেসর ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, দু’দেশের মধ্যে সম্পর্কে যে উত্তেজনা দেখা দিয়েছে তার ক্ষেত্র আছে।

সূত্রঃ মানব জমিন

Comments
Loading...