কুয়েতে বাংলাদেশি রোমিও!

0 ১১

image_16144_0দু’জনের দেখাশোনা তারপর ভালবাসা। সে ভালবাসা এতটাই গাঢ় হয় যে দু’জনেই বিয়ে করতে রাজি হয়ে যান তাই বাংলাদেশী গাড়িচালক তার প্রেমিকাকে তুলে নিয়ে আসেন। রেখে দেন তার নিজের চাকরিদাতার বাসায় সঙ্গোপনে তাকে যে রুমে রাখা হয় সে রুমটি অতিরিক্ত। এটি মূল বাসার বাইরের দিকে। একদিন বাড়িওয়ালা ছাদে গিয়ে বুঝতে পারেন তার সেই ঘরে নারীকণ্ঠ। ব্যসতিনি পুলিশ ডেকে ধরিয়ে দেন এখন জেলে কাটছে ওই বাংলাদেশির। এ ঘটনাটি ঘটেছে কুয়েতেতাকে জেলে পাঠানোর পর বিভিন্ন ব্লগে দাবি করা হচ্ছে তারা হলেন এ যুগের রোমিওজুলিয়েট। তাদের জেলে আটকে না রেখে বিয়ে পড়িয়ে দেয়া হোক। এতে আরও বলা হয়বাংলাদেশি ওই ড্রাইভারের প্রেমিকা একজন এশিয়ান। তিনি পরিচারিকার কাজ করতেন। তার সঙ্গে প্রেম হয়ে যায় ওই বাংলাদেশির

একপর্যায়ে তিনি প্রেমিকাকে তুলে নিয়ে যান তার বাসায় স্থান দেন তার নিয়োগকর্তার বাসার একটি রুমে কিন্তু শেষ রক্ষা হলো না। একদিন নিয়োগকর্তা গেলেন বাসার ছাদে। অকস্মাৎ তিনি ড্রাইভারের রুম থেকে নারীকণ্ঠ শুনতে পান। সঙ্গে সঙ্গে ছুটে যান সেখানে। গিয়ে পেয়ে যান ড্রাইভারের প্রেমিকাকে তিনি খোঁজখবর নিয়ে জানতে পারেন এই নারী ড্রাইভারের এ রুমে আছেন অনেক দিন ধরে। ওই প্রেমিকা তখন গৃহকর্তাকে জানানতিনি অন্য এক বাসার কাজের লোক। তাকে সেখান থেকে তুলে এনেছেন বাংলাদেশী ওই ড্রাইভার। তারপর থেকে ওই রুমেই রয়েছেন তিনি। তাকে প্রতিশ্র“তি দেয়া হয়েছে যেতারা বিয়ে করবেনএ অবস্থায় গৃহকর্তা ওই নারীকে নিয়ে যান রাজধানী কুয়েতের উত্তরপশ্চিমে আল জাহরা পুলিশ স্টেশনে সেখানকার পুলিশ তদন্ত করে দেখতে পায় ওই প্রেমিকা ওই রুমে অবস্থান করছিলেন এক মাস প্রতি রাতে বাংলাদেশি গাড়িচালক তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করতে যেতেন এ অবস্থায় পুলিশ আটক করে বাংলাদেশি গাড়িচালককে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। এ সময় তিনি বলেনতিনি ওই গৃহপরিচারিকার প্রেমে পড়েছেন। তারা দু’জনেই বিয়ে করতে রাজি হয়েছেন। এ সময় তিনি আরও স্বীকার করেওই পরিচারিকাকে তিনি তুলে এনেছেন যখন তার নিয়োগকর্তা বাসায় ছিলেন না তখন এ কাজ করেছেন তিনি। তুলে নিয়ে একটি নিরাপদ আশ্রয় দেয়ায় তার প্রেমিকা সেখানে থাকতে সম্মতি দেন। এ অবস্থায় বাংলাদেশি গাড়িচালকের বিরুদ্ধে একটি অপহরণ মামলা করা হয়। একই সঙ্গে তার প্রেমিকাকে ডিপোর্টেশন কর্তৃপক্ষের কাছে ফেরত পাঠানোর সুপারিশ করা হয়েছে এ রিপোর্টের বিষয়ে ব্লগাররা কর্তৃপক্ষকে নতুন যুগের এই রোমিওজুলিয়েটকে দেশে ফেরত না পাঠানোর আহ্বান জানিয়েছে আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশি গাড়িচালকের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা তুলে নিতে। হুমুদ নামে এক ব্লগার লিখেছেনএটা সত্যিকার একটি প্রেম কাহিনী। এটা আমাদের কাছে রোমিও অ্যান্ড জুলিয়েট। এর একটা সুখকর সমাপ্তি হওয়া দরকার

 

Comments
Loading...