অবশেষে উদঘাটন হলো জন আব্রাহামের নিখুঁত শরীরের “গোপন” রহস্য ও কার্যকরী কিছু টিপস

0 ১৬

paap_6_1024জন আব্রাহাম। একজন মডেল, ভারতীয় অভিনেতা এবং এই মুহূর্তে ভারতের সবচাইতে আবেদনময় পুরুষটির নাম। অনেকের জন্যই তিনি এখন আদর্শ। তার এক ঝলকে হাজারো যুবতীর হৃৎপিন্ডটি বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়। জনকে নিয়ে কৌতূহলের শেষ নেই। এত সুন্দর এবং “পারফেক্ট বডির” রহস্য কী? নিশ্চয়ই জানতে ইচ্ছে করছে? আপনার জন্য নিয়ে হাজির হলাম বলিউডের পারফেক্ট আবেদনময় নায়ক জন আব্রাহামের সিক্রেট ফর্মুলা, ডায়েট চার্ট ও কিছু দারুণ টিপস!

এক্টো-মেসোমরফ জন

সর্বজন স্বীকৃত শারীরিক অবকাঠামোর তিনটি ভাগ রয়েছে। যার মধ্যে এক্টো-মেসোমরফ( ecto-mesomorph) শারীরিক অবকাঠামোর অধিকারী এই তারকা। এই ধরণের শারীরিক গঠনের পুরুষদের সাধারণত চওড়া কাঁধের, চাপা কোমর, মজবুত গড়ালি এবং হাতের কব্জি, ভি শেপের তলপেটের অধিকারী হয়ে থাকে।

ডায়েট চার্ট

জন আব্রাহামের ডায়েট চার্টে সমপরিমাণে সবজি, মাছ, মাংস থাকে। শারীরিক চাহিদা অনুযায়ী এই তারকার দিনে ২০০ গ্রাম প্রোটিনের দরকার হয়। জন প্রতিদিন ৪ হাজার-৬ হাজার ক্যালোরি ক্ষয় করে থাকেন। জিম এবং শুটিংয়ের পরে নিজেকে সুস্থ রাখতে দিনে ছয় বেলা খাবারের এর সাথে সাথে মাল্টি ভিটামিন ট্যাবলেট এবং প্রোটিন সাপ্লিমেন্ট নিয়ে থাকেন এই তারকা। ভক্তদের সুবিধার্থে জন আব্রাহামের ডায়েট চার্টটি তুলে ধরা হল। কে জানে এই চার্টটি অনুসরণ করে আপানিও হয়ে যেতে পারেন জনের মতই আকর্ষণীয়!

জিমে যাওয়ার আগেঃ এক কাপ গ্রীন টি/ ব্ল্যাক কফি পান করতে একদমই ভুলে যান না জন। কেননা এই এক কাপ চা তাকে করে তোলে সজীব। এছাড়া ৪টি ডিমের সাদা অংশ/একটি সেদ্ধ আলু/ মিষ্টি আলুও হতে পারে/গমের তৈরি ফ্লেক্স/ ব্রাউন ব্রেড।

জিম থেকে ফিরে: ৬টা-৭টা মুরগির ডিম এবং সাথে প্রোটিন শেক তো আছেই।

সকালের নাস্তায়: পাস্তার সাথে সালাদ।

দুপুরের খাবারে: রুটির সাথে সেদ্ধ মাছের ৩-৪ টুকরা, স্প্রাউট, সবজি, ডাল, দই এবং একটি গাজর।

বিকালের নাস্তায়: ৩-৪টি ডিমের সাদা অংশ, আলুর ভর্তা,আপেল, কমলা, পাকা লেবু অথবা পেঁপে।

রাতের খাবারে: বাজরা/ জোয়ার/ নাচনি রুটি।

এদিকে বিকাল ৫ টার পরে আর কোন কার্বোহাইড্রেড যুক্ত খাবার খান না এই তারকা। সব মিলিয়ে জন আব্রাহামের খাবারের তালিকায় থাকে ৫০ শতাংশ প্রোটিন, ২০ শতাংশ কার্বোহাইড্রেড, ২০ শতাংশ ফাইবার এবং ১০ শতাংশ এন্টি অক্সিডেন্ট এবং এসেনশিয়াল ফ্যাট।

  • -জন প্রতিদিন ৪ হাজার- ৬ হাজার ক্যালোরি ক্ষয় করে থাকেন। জিম এবং শুটিংয়ের পরে নিজেকে সুস্থ রাখতে দিনে ছয় বেলা খাবারের এর সাথে সাথে মাল্টি ভিটামিন ট্যাবলেট এবং প্রোটিন সাপ্লিমেন্ট নিয়ে থাকেন এই তারকা।

ব্যায়ামপ্রেমী জন আব্রাহাম
প্রতি সপ্তাহে চারদিন ব্যায়ামাগারে যান এই হার্টথ্রব। প্রতিদিন ৪৫ মিনিট তিনি জিমে গিয়ে ব্যায়াম করে থাকেন। এছাড়া প্রতিদিন ৩০ মিনিট করে কার্ডিওভাস্কুলার ব্যায়াম করে থাকেন। এই ব্যায়ামটি তার হৃৎপিণ্ডটিকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। জিমে ব্যায়াম করার শেষে ২০- ২৫ মিনিটের জন্য দৌড়াতে বের হয়ে যান এই তারকা। শরীরের শেপকে ধরে রাখতে কিছু বিশেষ ব্যায়াম করে থাকেন জন। আর জনের এই বিশেষ সিক্রেট ব্যায়াম গুলো তুলে ধরা হল আপনার জন্য।

বুকের ব্যায়াম: ফ্ল্যাট বেঞ্চ প্রেস, ইনক্লাইন ডাম্বেল প্রেস, ডেক্লাইন পুল ওভার, কেবল ক্রস ওভার।

কাঁধের ব্যায়াম: বারবেল শোল্ডার প্রেস, ডাম্বেল আর্নল্ড প্রেস, ডাম্বেল লেটারাল রাইজ, ফ্রন্ট রাইজ।

কোমরের ব্যায়াম: বারবেল ডেড লিফট, পুল আপস, ওয়াইড গ্রিপ লেট পুল ডাউন,কেবল সিটেড রো, ওয়ান আরম ডাম্বেল রো।

পায়ের ব্যায়াম: বারবেল ফ্রন্ট স্কুয়াট, লেগ প্রেস, সিটেড লেগ কার্ল, কালফ প্রেস, লেগ এক্সটেনশন।

হৃৎপিণ্ডের ব্যায়াম: ট্রিডমিল রানিং এবং ওয়াকিং।

এবস পেটের মাংসপেশীর ব্যায়াম: এক্সসারসাইজ বল রিভার্স ক্রাঞ্চ, হেঙ্গিং লেগ রাইজ, প্ল্যাঙ্ক, লেগ রাইজ।

ভক্তদের উদ্দেশ্যে জন আব্রাহামের দেয়া কিছু হেলথ টিপস:
আপানার যদি আকর্ষণীয় পেশী চান তবে প্রতিদিন কমপক্ষে ৬-৭ টি ডিমের সাদা অংশ, এক টুকরা মাছ এবং মুরগীর বুকের মাংস খওয়া খুব জরুরী। আপনি যদি সত্যিই আকর্ষণীয় ফিগারের অধিকারী হতে চান তবে ব্যায়ামকে গৌণ মনে করলে চলবে না। আপনি কি জানেন? একটি পারফেক্ট শরীরের পেছনে ৬০ শতাংশ যেমন সঠিক ডায়েট প্ল্যানের উপর নির্ভর করে ঠিক তেমনই এর বাকি ৪০ শতাংশ নির্ভর করে ব্যায়ামের উপর।

প্রোটিন আমাদের দেহের জন্য অত্যন্ত উপকারী। তবে মাংস খাওয়ার বেলায় আমি নিজেও বেশ সচেতন। আমি কখনই রেড মিট খাই না। এবং আপনাদের কেউ বলছি রেড মিট খাবেন না। এটা শরীরের জন্য বেশ ক্ষতিকারক।

Comments
Loading...