থ্রিডিআই স্কুল

0 ১৩

nav-3diঢাকা: ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতির মাধ্যমে প্রযুক্তিগত জ্ঞান ও বিদ্যার সঙ্গে মনন, শিল্প-সংস্কৃতি, ডিজাইন এবং সৃষ্টিশীল কাজের সঙ্গে শিশুদের যুক্ত করতে চালু হয়েছে থ্রিডিআই স্কুল।

নিউজিল্যান্ডের ইউনিভার্সিটি অব ওকল্যান্ডের সার্বিক সহযোগিতায় থ্রিডিআই স্কুল শিশুদের বর্তমান যুগের একজন উন্নত নাগরিক হিসেবে গড়তে ডিজিটাল শিক্ষা পদ্ধতিতে পাঠদান করছে।

থ্রিডিআই স্কুলের মাস্টার ট্রেইনার যায়েদ বিন কাইয়ুম বাংলামেইলকে বলেন, ‘থ্রিডিআই স্কুলে ৫ থেকে ১৫ বছর বয়সী বাচ্চা প্রশিক্ষণ দেয়া হচ্ছে। নিয়মিত একাডেমিক লেখাপড়ার পাশাপাশি বাচ্চাদের প্রযুক্তি জ্ঞান ও আর্ট-কালচার, ডিজাইন এবং ক্রিয়েটিভ কাজের সঙ্গে দক্ষ করে তুলতে আমাদের প্রশিক্ষণ। বর্তমানে সপ্তাহে একদিন ক্লাস নেয়া হচ্ছে। ভবিষ্যৎ বাচ্চাদের একাডেমিক স্কুলের।’

যায়েদ বিন কাইয়ুম বলেন, ‘থ্রিডিআই স্কুল প্রোগ্রামের মাধ্যমে বাচ্চাদের যৌক্তিক বুদ্ধিমত্তা, নিজস্ব দক্ষতার বহিঃপ্রকাশ, কল্পনা শক্তির বিকাশ করা হয় ক্রিয়েটিভ শিক্ষা ও সমস্যা কেন্দ্রীক সমাধান পদ্ধতির মাধ্যমে, আর এই সৃজনশীল চিন্তাশক্তির মাধ্যমে তারা তাদের পাঠ্য বিষয়কে আরো অনেক সহজভাবে বুঝতে পারে। এই প্রোগ্রামটি তার জীবনের শিক্ষা ও মননের প্রতিটি ক্ষেত্রে দক্ষতার উন্নয়ন করবে এবং প্রযুক্তির ছোঁয়ায় সে হয়ে ওঠবে উন্নত বিশ্বের একজন দক্ষ ও পরিপূর্ণ নাগরিক হয়ে।’

থ্রিডিআই স্কুলের হেড অব বিজসেস আকরাম হোসেন বলেন, ‘আমাদের দেশে বাচ্চারা শুধুমাত্র বিদ্যালয়ে পাঠ্যপুস্তক পড়ে জ্ঞান লাভ করে, এর বাইরে তাদের মেধা বিকাশের কোনো বিকল্প প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা নেই। আমাদের এখানে বাচ্চারা বিদ্যালয়ে পাঠ্যক্রমের বাইরে প্রযুক্তি জ্ঞান ও আর্ট-কালচার, ডিজাইন এবং ক্রিয়েটিভ জ্ঞান লাভ করবে। শুধু তাই নয় এই প্রশিক্ষণ তাদের নিয়মিত পাঠ্যক্রমে সহায়ক হবে। নতুন ডিজিটাল টেকনোলোজি এবং আধুনিক প্রশক্ষিণ উপকরণের মাধ্যমে একটি শিশুর জন্মগত প্রতিভার নিশ্চিত বিকাশ ঘটবে। মস্তিষ্কের পরিপূর্ণ সঠিক ব্যবহার নিশ্চিত করে যা তার একাডেমিক শিক্ষায় অধিক নাম্বার পেতে সহায়তা করে।’

আকরাম হোসেন বলেন, ‘থ্রিডিআই স্কুলের যারা বাচ্চাদের প্রশিক্ষণে নিযুক্ত শিক্ষকরা দেশের বাইরে থেকে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত। উন্নত বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে বিশ্বমানের প্রশিক্ষণ দিতে থ্রিডিআই স্কুলের শিক্ষকদেরও প্রতিনিয়ত প্রশিক্ষণ দেয়া হয়। ফলে বাচ্চারাও দক্ষ শিক্ষকদের কাছে উন্নত প্রশিক্ষণ পাবে।’

আকরাম হোসেন বলেন, ‘আমাদের স্কুলে ভর্তি হতে এককালীন পাঁচ হাজার টাকা খরচ হয়, এছাড়া প্রতিমাসে ১৫শ টাকা টিউশন ফি দিতে হবে। বর্তমানে রাজধানীর কাঁটাবন, ধানমণ্ডি ৯/এ এবং ধানমণ্ডি ১০/এ-তে তিনটি ক্যাম্পাসে প্রশিক্ষণ দেয়া হয়।’

বিস্তারিত জানতে যোগাযোগে করুন: www.3dischool.com

Comments
Loading...